বাংলা সফরে সুব্রক্ষণ্যম স্বামী, ‘হাওয়া বদল’ নিয়ে কটাক্ষ তথাগতর

বাংলা সফরে সুব্রক্ষণ্যম স্বামী, 'হাওয়া বদল' নিয়ে কটাক্ষ তথাগতর
বাংলা সফরে সুব্রক্ষণ্যম স্বামী, 'হাওয়া বদল' নিয়ে কটাক্ষ তথাগতর

নজরবন্দি ব্যুরোঃ মাত্র ২৪ ঘন্টা হয়েছে তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে ১৮৪ সাউথ অ্যাভিনিউতে বৈঠক সেরেছেন বিজেপি সাংসদ সুব্রক্ষণ্যম স্বামী। তারপরেই মোদির সরকারের রিপোর্ট কার্ড দিয়েছেন বর্ষীয়ান বিজেপি নেতা। তা থেকেই তাঁর দলবদলের জল্পনা শুরু হয়েছে। এরপর নিজেই বাংলার আসার কথা ট্যুইট করে জানিয়েছেন। এর থেকেই বেড়েছে জল্পনা। তবে বাংলায় এসে তৃণমূলে যোগদান করবেন তিনি?

আরও পড়ুনঃ SSC: ব্রাত্য কেন যোগ্যরা? দুর্নীতির দায়ে শিক্ষামন্ত্রীর পদত্যাগের দাবি!

বিজেপির রাজ্যসভার সাংসদ সুব্রক্ষণ্যম স্বামী ট্যুইট করে জানিয়েছেন, আগামী মাসের মাঝামাঝি সময় করে বাংলা সফরে তিনি আসবেন। রাজ্যের বেশ কিছু জায়গায় অবস্থা কী রয়েছে? তা খতিয়ে দেখবেন। এমনকি তথ্যের সত্য যাচাইয়ের জন্য প্রশাসনিক কর্তাদের সঙ্গে বৈঠক সারবেন তিনি। সেইসঙ্গে তিন বছর আগে তারকেশ্বর মন্দির নিয়ে মমতা তাঁর মতামতকে মান্যতা দিয়েছিলেন সেই প্রসঙ্গ তুলে ধরেন তিনি।

বাংলা সফরে সুব্রক্ষণ্যম স্বামী এবং তাঁর মুখে মমতার প্রশংসা শুনে বেজায় চটেছেন রাজ্য বিজেপির নেতারা। সরাসরি রাজ্যসভার সাংসদকে কটাক্ষ করে জবাব দিয়েছেন তথাগত রায়। ট্যুইটারে তাঁর জবাব, শুধুমাত্র প্রশাসনিক আধিকারিকদের সঙ্গে কেন? কেন ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার এবং বিরোধী পক্ষের সঙ্গে দেখা করবেন না তিনি? “আপনি চাইলে বাংলার মনোরম প্রকৃতি অনুভব করার জন্য আসতেই পারেন”।

তিনি আরও বলেন, “আমি আপনাকে বলতে পারি প্রশাসিনিক কর্তারা কী বলবেন। তাঁরা বলবেন, বাংলায় কোনও হত্যা হয়নি। শুধুমাত্র কয়েকজন আত্মহত্যা করেছেন। বাকি কিছু জনের পারিবারিক বিবাদের কারণে মৃত্যু হয়েছে। আপনি রেকর্ড দেখে নিতে পারেন”।

একইসুর বিজেপি নেত্রী প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়ালের কথা তেও। তিনি বলেন, আট মাস পর এখন তথ্য যাচাই করতে আসছেন? আমরা সকলেই জানি এর পিছনে কি কারণ রয়েছে। আসলে একটি নির্মম সরকার ভালো ছবি তুলে ধরার চেষ্টা করছে।

বাংলা সফরে সুব্রক্ষণ্যম স্বামী,  বাংলাতেই ফুল বদল!

বাংলা সফরে সুব্রক্ষণ্যম স্বামী,  বাংলাতেই ফুল বদল!
বাংলা সফরে সুব্রক্ষণ্যম স্বামী,  বাংলাতেই ফুল বদল!

বাংলা সফরে সুব্রক্ষণ্যম স্বামী, তবে কী বাংলায় এসে তৃণমূলের যোগ দেবেন তিনি? যদিও দিল্লীতে মমতার সঙ্গে সাক্ষাতের পর তিনি বলেই ছিলেন মমতার পাশে তিনি রয়েছেন। আলাদা করে তৃণমূলে যোগ দেওয়ার প্রয়োজন নেই। তা থেকেই স্পষ্ট হয়ে গিয়েছিল মোদি সরকারের কড়া সমালোচক বিজেপি নেতার তৃণমূলে যোগদান শুধুমাত্র সময়ের অপেক্ষা।