প্রবীণ অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের শারীরিক অবস্থা এখনও সংকটজনক।

প্রবীণ অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের শারীরিক অবস্থা এখনও সংকটজনক।

নজরবন্দি ব্যুরোঃ প্রবীণ অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের শারীরিক অবস্থা এখনও সংকটজনক। বিভিন্ন প্রতিকূলতাকে পার করার আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন প্রবীণ অভিনেতা। তবে চিকিত্‍সকদের আশা, ওষুধ ও চিকিত্‍সায় ঠিক সাড়া দেবেন কিংবদন্তি অভিনেতা। রেনাল ফাংশানের উন্নতির জন্য ডায়ালিসিস করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন চিকিত্‍সকরা। প্রথম দফায় ২-৩টি এপিসোডের ডায়ালিসিস করা হবে বলে বেলভিউ হাসপাতালের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছিল।

আরও পড়ুনঃ আশঙ্কা বাড়াচ্ছে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ! আবারও লকডাউনের পথে হাঁটল ইউরোপের একাধিক দেশ।

বুধবার ডা. অরিন্দম কর বলেন, প্রথম দফার ডায়ালিসিস ভালভাবেই শেষ হয়েছে। রক্তচাপে কোনও সমস্যা হয়নি। বেশিরভাগ প্যারামিটারই স্বাভাবিক রয়েছে। কোনও সাপোর্ট ছাড়াই বর্তমানে তাঁর রক্তচাপ ১৪৫/৯০। তবে এখনও অনেকটাই আচ্ছন্নভাব রয়েছে। এখন ৫০ শতাংশের কমই ভেন্টিলেশন সাপোর্টের প্রয়োজন হচ্ছে। তাতেই শ্বাস-প্রশ্বাস স্বাভাবিক রয়েছে। রক্তক্ষরণ হচ্ছে না। শরীরে জ্বরও নেই। তবে একইসঙ্গে তিনি এও বলেন, আগের মতোই অত্যন্ত সংকটজনক অবস্থায় রয়েছেন অভিনেতা। অবস্থার উন্নতি যে হয়েছে, তা এখনই বলা যাচ্ছে না।

চিকিত্‍সকের কথায়, ‘প্রয়োজন মতো অ্যান্টি বায়োটিক আপডেট করা হচ্ছে। আশা করছি সেগুলো কাজ করবে। তবে এখনও তাঁর শারীরিক অবস্থা বেশ সংকটজনক। আমরা আমাদের তরফে সবরকম চেষ্টা করছি। উনিও দারুণভাবে লড়াই করছেন। এই বয়সে কো-মর্বিডিটি নিয়ে লড়াই করা অত্যন্ত কঠিন। ঈশ্বরের কাছে ওঁনার দ্রুত আরোগ্য কামনা করছি। আপনারা ঈশ্বরেরে কাছে প্রার্থনা করুন।’ উল্লেখ্য, ৬ অক্টোবর থেকে বেলভিউ হাসপাতালে চিকিত্‍সাধীন অভিনেতা।

প্রবীণ অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের শারীরিক অবস্থা এখনও সংকটজনক। করোনা আক্রান্ত অবস্থায় তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। প্লাজমা থেরাপির পর তাঁর করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। সেইসঙ্গে চিকিত্‍সাতেও সাড়া দিতে থাকেন তিনি। কিন্তু আচমকাই তাঁর শারীরিক অবস্থা সংকটজনক হয়ে পড়ে। চিকিত্‍সকরা জানান, সৌমিত্রর শরীরে সমস্যা বাড়িয়েছে কোভিড এনসেফ্যালোপ্যাথি। তারপর থেকেই তাঁর চেতনা ক্রমশ কমতে শুরু করে। বয়স এবং কো-মর্বিডিটি সৌমিত্রর চিকিত্‍সার পথে বাধা হয়ে দাঁড়াচ্ছে বলে জানিয়েছেন চিকিত্‍সকরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x