পাওয়ার-কিশোর সাক্ষাৎ কি ২০২৪ এর টিম তৈরির সূচনা? জল্পনা তুঙ্গে।

পাওয়ার-কিশোর সাক্ষাৎ কি ২০২৪ এর টিম তৈরির সূচনা? জল্পনা তুঙ্গে।
পাওয়ার-কিশোর সাক্ষাৎ কি ২০২৪ এর টিম তৈরির সূচনা? জল্পনা তুঙ্গে।

নজরবন্দি ব্যুরোঃ পাওয়ার-কিশোর সাক্ষাৎ কি ২০২৪ এর টিম তৈরির সূচনা? জল্পনা তুঙ্গে। কিছুদিন আগেই তামিলনাড়ু ও পশ্চিমবঙ্গ দুই রাজ্যের নির্বাচনেই বিজেপির রথের চাকা বসে গিয়েছে। আর তারপর থেকেই জাতীয় রাজনীতির অন্যতম আলোচতি চরিত্র দুই ম্যাচের মাস্টারমাইন্ড ভোট কৌশলী তথা আইপ্যাক কর্তা প্রশান্ত কিশোর। দুই রাজ্যেই তাঁর কৌশলের কাছে রাজনীতির ‘চানক্য’ অমিত শাহ গোহারান হেরেছেন।

আরও পড়ুনঃ রাজ্যসভার সাংসদ হচ্ছেন মুকুল, কৃষ্ণনগর উত্তরে লড়বেন শুভ্রাংশু! #Exclusive

সেই প্রশান্ত কিশোরের সাথে শরদ পাওয়ারের সাক্ষাতের পরেই জাতীয় রাজনীতিতে জল্পনা ছড়িয়েছে তবে কি ২০২৪ লোকসভা যুদ্ধের প্রস্তুতি শুরু হয়ে গেল। যদিও জল্পনায় জল ঢেলে প্রশান্ত জানিয়েছেন এই সাক্ষাৎ নেহাতই সৌজন্য সাক্ষাৎ। এনসিপি প্রধানের বাড়িতে দুপুরের খাওয়াদাওয়া সারেন তিনি। প্রশান্ত জানিয়েছেন দুই রাজ্যেই জয়ী দলকে সমর্থন জানিয়েছেন পাওয়ার তাই ধন্যবাদ জানাতেই ছুটে এসেছেন তাঁর বাড়ি। তবে প্রশান্তের যুক্তি জল্পনা থামাতে পারছে না। অনেকেই শুক্রবাসরীয় এই বৈঠককে ‘মিশন ২০২৪’-এর সূচনা পর্ব হিসেবে ধরে নিচ্ছেন। আপাত ভাবে একে সৌজন্য সাক্ষাৎ বলা হলেও আদপে এ লোকসভা ভোটের প্রস্তুতির শুরু বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

পাওয়ার-কিশোর সাক্ষাৎ কি ২০২৪ এর টিম তৈরির সূচনা? জল্পনা তুঙ্গে। যদিও ২ মে রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূলের সাফল্যের পরই প্রশান্ত কিশোর জানিয়ে দিয়েছিলেন, তিনি আপাতত এই কাজ থেকে নিজেকে সরিয়ে রাখতে চান। এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে প্রশান্ত বলেছিলেন, ‘‘এখন যা করছি তা আমি আর চালিয়ে যেতে চাই না। অনেক কাজ করেছি। এবার একটা ব্রেক নিয়ে জীবনে আরও কিছু করতে চাই।’’ তবে মুখে তিনি যাই বলুন আদপে যে এখনই তিনি রাজনীতিকে ছাড়তে পারবেন না তাঁর প্রমান এখানেই। এই বৈঠকের পেছনে বিরোধী মহাজোট গঠনে অগ্রণী রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের ভূমিকা থাকার সম্ভবনা থাকার কথাও উড়িয়ে দিতে পারছে না রাজনৈতিক মহল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here