প্রতীক্ষার অবসান ঘটিয়ে আসছে টিকা, দাম কত? জানালেন সেরাম কর্তা

প্রতীক্ষার অবসান ঘটিয়ে আসছে টিকা, দাম কত? জানালেন সেরাম কর্তা

নজরবন্দি ব্যুরো: প্রতীক্ষার অবসান ঘটিয়ে আসছে টিকা, এক বছরের দমবন্ধ করা আতঙ্ক, আর লম্বা অপেক্ষার পর অবশেষে সরকার থেকে ছাড়পত্র পেয়েছে অক্সফোর্ডের করোনা টিকা কোভিশিল্ড। যদিও এখনও কেন্দ্রের থেকে টিকার বরাত পায়নি সেরাম ইনস্টিটিউট। ভারতে অক্সফোর্ড ও অ্যাস্ট্রাজেনেকার নির্মিত টিকা ইতিমধ্যেই নিয়ে এসেগেছে সেরাম। যদিও সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা আদর পুনাওয়ালা জানিয়েছেন দেশের থেকে এখনও কোন পারচেজিং অর্ডার পাননি তাঁরা। সেই ছাড়পত্র পেলেই সপ্তাহের মধ্যেই ঠিক স্থানে টিকা পৌঁছে যাবে বলে মনে করচ্ছেন তাঁরা।

আরও পড়ুন: বিজেপিকে মোকাবিলা করতে চাই ‘বিকল্প নীতি’, সীতারাম ইয়েচুরি

প্রাথমিক ভাবে প্রতি টিকা পিছু ২০০ টাকা ধরে সরকারকে দিচ্ছে সেরাম। প্রথম দশ কোটি ডোজ ২০০ টাকা রেটে দেবে সেরাম। সরকার অনুমতি দিলেই এরপর উন্মুক্ত বাজারে বিক্রি করবেন এসব। এখনও পর্যন্ত ৫ কটি টাকার ডোজ জমা করে রেখেছে সেরাম। এরপর সরকারের ছাড়পত্র দিলেই বাজারে আনবেন তাঁরা। সেরাম কর্তা পুনাওয়ালা মনে করছেন মার্চ-এপ্রিলের আগে খোলা বাজারে পাওয়া যাবেনা বলে মনে করছেননা তাঁরা। এমনকী রফতানির ওপরও আপাতত নিষেধাজ্ঞা আছে বলে জানান তিনি। শুধু দেশেই নয় বিশ্বাসংস্থার কোভ্যাক্স প্রোজেক্টে ১০ কোটি ডোজ পাঠাবে সেরাম। তবে সেক্ষেত্রেও এখনও ছাড়পত্র দেয়নি সরকার। আগে দেশে পর্যাপ্ত পরিমান টিকার যোগান দেওয়ার পরই দেশের বাইরে জগান দিতে পারবে তারা।

প্রসঙ্গত, শনিবার বিশেষজ্ঞ কমিটি ও তারপর রবিবার ডিজিসিআই, অর্থাৎ সরকারের ওষুধ নিয়ন্ত্রক সংস্থা কোভিশিল্ডকে জরুরি পরিস্থিতিতে ব্যবহারের জন্য ছাড়পত্র দেয়। এক মাসের ব্যবধানে টিকার দুটি ডোজ দেওয়া হলে কার্যকারীতা ৬২ শতাংশ ও দুই থেকে তিন মাস বাদে দিলে টিকার কার্যকারীতা ৯০ শতাংশ বলে জানান আদর পুনাওয়ালা। দেশের মানুষের স্বার্থে তাঁরা কাজ করবেন। এক বছরের করোনা কালে শুরু থেকেই মানুষ পতীক্ষা করছে কবে আসবে ভ্যাকসিন। মানুষ চলাফেরা করতে পারবে নিজদের মত। অনেক গবেষণা করে পরীক্ষা নিরীক্ষার পর কয়েকটি সংস্থা প্রস্তুত করে ফেলেছে টিকা।

প্রতীক্ষার অবসান ঘটিয়ে আসছে টিকা, টিকা প্রস্তুতকারক সংস্থারা যাতে আইনি কোনও ঝামেলায় না জড়িয়ে যায়, তার জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে আবেদন করেছেন আদর পুনাওয়ালা।। সেই নিয়ে আইন মন্ত্রকের সাথে কথাও বলেছেন তিনি। প্রসঙ্গত, সেরাম ছাড়াও ভারত বায়োটেকের কোভ্যাক্সিনকেও ছাড়পত্র দিয়েছে সরকার। কোনও টিকার নাম না করে, আদর পুনাওয়ালা বলেন যে এখনও পর্যন্ত বিশ্বে মাত্র তিনটি ভ্যাকসিনই প্রমাণ করতে পেরেছে যে সেগুলি কার্যকরী-ফাইজার, মডার্না ও অক্সফোর্ড। আর সেদিকেই তাকিয়ে আছে গোটা দেশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x