বদলানো হোক রুটিন, প্রতিবাদে বিশ্ববিদ্যালয়ের দরজা ভাঙল পড়ুয়ারা

বদলানো হোক রুটিন, প্রতিবাদে বিশ্ববিদ্যালয়ের দরজা ভাঙল পড়ুয়ারা
বদলানো হোক রুটিন, প্রতিবাদে বিশ্ববিদ্যালয়ের দরজা ভাঙল পড়ুয়ারা

নজরবন্দি ব্যুরোঃ বদলানো হোক রুটিন, প্রতিবাদে বিশ্ববিদ্যালয়ের দরজা ভাঙল পড়ুয়ারা। গত পরশু থেকেই কলিকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক স্তরের চুড়ান্ত সেমিস্টারের পরীক্ষা নিয়ে ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে ক্ষোভ দেখা গিয়েছিলো। এর ঠিক পরে পরীক্ষার সময়সূচী ও মাইগ্রেশন সার্টিফিকেট সহ নানা দাবী নিয়ে গতকাল সকাল থেকেই ইউনিভার্সিটির বাইরে ছাত্ররা ভীর করতে থাকে। কলেজ স্ট্রিট ক্যাম্পাসে চলতে থাকে বিক্ষোভ। এর পর বিশ্ববিদ্যালয়ে তালা ভেঙ্গে ভেতরে ঢুকে পড়ে ছাত্ররা।

আরও পড়ুনঃ এবার করোনার থাবা অলিম্পিকে, ভিলেজেই করোনা পজিটিভ এক জন

বদলানো হোক রুটিন, প্রতিবাদে বিশ্ববিদ্যালয়ের দরজা ভাঙল পড়ুয়ারা। বিক্ষোভ চলাকালীন ছাত্ররা কলিকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের গেট ধরে ঠেলাঠেলি শুরু করলে তালা ভেঙ্গে যায়। ছাত্র-ছাত্রীরা ভেতরে ঢুকে পড়ে। খবর পেয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে পুলিশ উপস্থিত হয়। জানা যায়, পুলিশ পরিস্থিতি সামলাতে গেলে উত্তেজনা আরও বাড়ে। তবে ছাত্রদের দাবী, পুলিশ কিছু ছাত্রদের গায়ে হাত তোলে।এবং তাঁদের সাথে মহিলা পুলিশ ছিলো না বলে তাঁরা জানায়।

বদলানো হোক রুটিন, প্রতিবাদে বিশ্ববিদ্যালয়ের দরজা ভাঙল পড়ুয়ারা। এবিষয়ে  আলোচনা করবেন, আশ্বাস সহ-উপাচার্যের।

এদিন সকালে কয়েকশো ছাত্রছাত্রী মাইগ্রেশন সার্টিফিকেটের দাবী, রেজিস্ট্রেশন সার্টিফিকেটের দাবী, অসম্পূর্ণ ফল ও স্নাতক স্তরের চুড়ান্ত সিমেস্টারে একই দিনে দু’টি পরীক্ষা নেওয়ার প্রতিবাদে কলেজ স্ট্রিট ক্যাম্পাসে কয়েক মাস আগে তৈরী “ক্যালকাটা ইউনিভার্সিটি স্টুডেন্টস ইউনিটি”-র নেতৃত্বে জড়ো হয়েছে ছাত্র-ছাত্রীরা। তাঁদের দাবী, আগেও বেশ কয়েকবার রেজিস্ট্রেশন ও মাইগ্রেশন সার্টিফিকেট নিতে এসে ছাত্র-ছাত্রীরা ফিরে গিয়েছে। এবং আগের বছর পরীক্ষা দিয়েও রেজাল্ট অসম্পুর্ন আসে।

বদলানো হোক রুটিন, প্রতিবাদে বিশ্ববিদ্যালয়ের দরজা ভাঙল পড়ুয়ারা। এবিষয়ে  আলোচনা করবেন, আশ্বাস সহ-উপাচার্যের।
বদলানো হোক রুটিন, প্রতিবাদে বিশ্ববিদ্যালয়ের দরজা ভাঙল পড়ুয়ারা। এবিষয়ে  আলোচনা করবেন, আশ্বাস সহ-উপাচার্যের।

এ বিষয়ে কলেজ বলছে বিশ্ববিদ্যালয় জানে, বিশ্ববিদ্যালয় বলছে কলেজ জানে। ফলে ভোগান্তিতে পড়ছে ছাত্র-ছাত্রীরা। পাশাপাশি অনলাইন ক্লাস ঠিক মত না করে, সিলেবাস শেষ না করে একই দিনে দুটো করে স্নাতক স্তরের চুড়ান্ত সেমিস্টার নেওয়া হচ্ছে। বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদের অসুবিধে বুঝতে চাইছে না।

বিক্ষোভ চলাকালীন, ইউনিভার্সিটি কলেজ অব আর্টস অ্যান্ড কমার্স-এর সচিব ছাত্র-ছাত্রীদের কাছে আসেন এবং তাঁদের বক্তব্য শোনেন এবং ছাত্র-ছাত্রীদের আশ্বাস দেন, সাপ্লিমেন্টারি পরীক্ষার ক্ষেত্রে কিছু ফল এখনও ‘নট ফাউন্ড’। কলেজ সম্পূর্ণ ফল পাঠালে তা প্রকাশ করা হবে। এবং ষষ্ঠ সিমেস্টারে একই দিনে দু’টি পরীক্ষা নিয়ে আলোচনা করবেন, এমনই বললেন সহ-উপাচার্য।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here