নিজের শেষ বইতে মোদীকে বার্তা প্রণবের, কী বলে গেলেন রাজনীতির চানক্য

নিজের শেষ বইতে মোদীকে বার্তা প্রণবের, কী বলে গেলেন রাজনীতির চানক্য

নজরবন্দি ব্যুরোঃ নিজের শেষ বইতে মোদীকে বার্তা প্রণবের, প্রধানমন্ত্রীর উচিৎ সংসদে আরোও বেশি উপস্থিত থাকা এবং বিরোধিদের কথা মন দিয়ে শোনা। এমনটাই নিজের শেষ বইতে লিখেছেন প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি। তাঁর ধারণা, সংসদে নরেন্দ্র মোদির উপস্থিতি প্রশাসনিক বিষয়ে বিরাট ধরনের পরিবর্তন আনতে পারবে।  উল্লেখ্য, গত ৩১ আগস্ট শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়

আরও পড়ুনঃ তৃণমূল কর্মীকে খুনে অভিযুক্ত বিজেপি। উত্তপ্ত অনুব্রতর গড়।

তিনি ২০১২ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত ‘দ্য প্রেসিডেনশিয়াল ইয়ার্‌স, বইটি লেখেন। গতকাল মঙ্গলবার সেই বইটি প্রকাশিত হয়। তাতেই লেখা দেশের প্রধানমন্ত্রী ও বর্তমান সরকারের বিষয়ে।  প্রণব মুখোপাধ্যায় তাঁর বইতে লিখেছেন, মোদীর উচিৎ পূর্বসূরীর কাজ থেকে অনুপ্রেরণা নেওয়া। এবং প্রধানমন্ত্রীর উচিৎ সংসদে উপস্থিতির হার বাড়ানো এবং বিরোধী নেতৃত্বদের সাথে কথা বলা। ও তাঁদের কথায় গুরুত্ব দেওয়া।

তিনি বইটিতে লিখেছেন, পূর্বসূরীরা যেমন জওহরলাল নেহরু, ইন্দিরা গাঁধী, অটলবিহারি বাজপেয়ী, মনমোহন সিংহ তাঁরা সকলেই সংসদে নিজেদের উপস্থিতি বুঝিয়ে দিয়েছিলেন। তাঁর মতে, সংসদে নিজের মতামত যেমন সকলের সামনে তুলে ধরা যায়, ঠিক সেই ভাবেই বিরোধীদের বক্তব্য প্রশ্ন শুনে তার জবাব দিয়ে সন্তুষ্টও করতে পারেন। তাঁর লেখার মধ্যে তিনি ইউপিএ জমানায় নিজের ভূমিকার কথাও তুলে ধরেছেন।

নিজের শেষ বইতে মোদীকে বার্তা প্রণবের, তিনি লিখেছেন, সেই সময়ে বিরোধী নেতৃত্বদের সাথে যোগাযোগ রাখতেন তিনি। এবং ইউপিএ এবং এনডিএ শীর্ষ ও অভিজ্ঞ নেতৃত্বদের মতামতও নিতেন বেশ কিছু বিষয়ে। প্রসঙ্গত, শুধু বইতে এই কথা লেখেননি প্রণব মুখোপাধ্যায়, মৃত্যুর আগে তিনি নিজে এই পরামর্শ দিয়ে ছিলেন বর্তমান সরকারকে।

ডিসেম্বর ২০১৯-এ অটলবিহারি বাজপেয়ীর স্মৃতিচারণের সভায় বক্তব্য রাখার সময়ে প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি বলেছিলেন, ‘৪৮ বছরের অভিজ্ঞতা থেকে বলছি, সংখ্যাগরিষ্ঠতা স্থিতিশীল সরকার গড়ার অধিকার দেয়। কিন্তু তারপরেও সকলের সঙ্গে মিলেমিশেই কাজ করতে হয়। এবং তা করাও উচিৎ। সংসদীয় গণতন্ত্র অনুযায়ী সরকারকে সবসময়ে বিরোধী-সহ অন্যান্যদের মতামত মেনেই চলতে হয়। এবং তিনি বলেছিলেন, যারা এর উল্টো পথে চলার চেষ্টা করেছে দেশের ভোটাররা তাঁদের শাস্তি দিয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x