শিক্ষক মুক্তমঞ্চের নবান্ন অভিযানে ধুন্ধুমার, আহত একাধিক পুলিশকর্মী।

শিক্ষক মুক্তমঞ্চের নবান্ন অভিযানে ধুন্ধুমার, আহত একাধিক পুলিশকর্মী।

নজরবন্দি ব্যুরো: শিক্ষক মুক্তমঞ্চের নবান্ন অভিযানে ধুন্ধুমার কলকাতার রেড রোড চত্বর। পুলিশ ও শিক্ষকদের বচসায় আহত হন একাধিক পুলিশকর্মী। এর মধ্যে বেশ কয়েকজন শিক্ষককে আটক করা হয়েছে। উত্তেজনা নিয়ন্ত্রণে আনতে নামানো হয়েছে কমব্যাট ফোর্স ও র‍্যাফ। এলাকায় মোতায়েন করা হয়েছে বিশাল পুলিশবাহিনী।  

আরও পড়ুন: নজরে মতুয়া ভোট, রাণাঘাটে হাইভোল্টেজ সভা মমতার

শিক্ষক ঐক্যমঞ্চের ব্যানারে এদিন শহিদ মিনার চত্বরে আন্দোলন ও অবস্থান বিক্ষোভ শুরু করে একাধিক শিক্ষক সংগঠন। প্রাথমিকভাবে শান্তিপূর্ণভাবে অবস্থান শুরু হলেও মিছিল নবান্ন অভিমুখে যাত্রা শুরু করতেই ধুন্ধুমার পরিস্থিতি তৈরি হয়। রেড রোড ধরে মিছিল নবান্নর দিকে এগোতে গেলে বাধা দেয় পুলিস। তাঁদের সঙ্গে বচসায় জড়িয়ে পড়েন পার্শ্বশিক্ষকেরা। দুই তরফে ধস্তাধ্বস্তির জেরে আহত হন একাধিক পুলিস কর্মী। ঝরে পড়ে রক্ত। আঘাত পান ডিসি সাউথ নীলকণ্ঠ সুধীরকুমার।

শিক্ষক মুক্তমঞ্চের নবান্ন অভিযানে ধুন্ধুমার । আদালত অনুমতি না দিলেও নবান্ন পর্যন্ত অভিযানের দাবিতে অনড় রয়েছেন আন্দোলনকারীরা। মেয়ো ও রেড রোডের সংযোগ স্থলে বর্তমানে রাস্তার উপর অবস্থান চলছে। দফায় দফায় পুলিসের সঙ্গে বচসা বাঁধে তাঁদের। বেশ কয়েকজন শিক্ষাকর্মীকে আটক করেছে পুলিস। দুজন আন্দোলনকারী অসুস্থ হয়ে পড়লে তাঁদের এসএসকেএম হাতপাতালে ভর্তি করা হয়। শেষ পর্যন্ত শহিদ মিনারের ধর্না মঞ্চে ফিরে এসেছেন আন্দোলনকারীরা। প্রসঙ্গত, গতকাল ছুটির দিনেও আদালতে জরুরি ভিত্তিতে শুনানি হয়। এরপর শিক্ষাকর্মীদের শহিদ মিনার চত্বরে অবস্থান বিক্ষোভ করার অনুমতি দেয় আদালত। তবে মিছিল ও নবান্ন অভিযানের অনুমতি দেয়নি আদালত।

উল্লেখ্য, প্রাণীমিত্র, প্রাণীবন্ধু, এসএসকে, এমএসকে, পার্শ্বশিক্ষকরাই শিক্ষক ঐক্য মুক্তমঞ্চের সদস্য। বেতন কাঠামোর উন্নতি-সহ একাধিক দাবি রয়েছে তাঁদের। সেই দাবিতে সোমবার দুপুরে নবান্ন অভিযানের সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন শিক্ষক ঐক্য মুক্তমঞ্চের সদস্যরা। এদিন সকালে প্রথমে শহিদ মিনারের কাছে জমায়েত হন তাঁরা। কিছুক্ষণ ধরে চলে সভা। তারপর নবান্ন অভিযান শুরু করেন সদস্যরা। তবে ডাফরিন রোডের কাছে মিছিল আটকে দেয় পুলিশ। তাতেই উত্তেজিত হয়ে পড়েন শিক্ষক ঐক্য মুক্তমঞ্চের সদস্যরা। শুরু হয় পুলিশ-মিছিলকারীদের কথা কাটাকাটি। মুহূর্তেই তা হাতাহাতির চেহারা নেয়। মিছিলকারীদের প্রথমে বোঝানোর চেষ্টা করেন পুলিশকর্মীরা। তবে তা সম্ভব হয়নি।পরিস্থিতি বেগতিক বুঝে লাঠি উঁচিয়ে বিক্ষোভকারীদের দিকে তেড়ে যায় পুলিশ। আর তাতেই আহত হন পুলিশকর্মী। তবে এই ঘটনায় কাউকেই গ্রেপ্তার করা হয়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x