Partha Chaterjee: বিধায়কপদ থেকে ইস্তফা দিতে প্রস্তুত, মক্কেলের হয়ে জানালেন পার্থর আইনজীবী

Partha Chaterjee: বিধায়কপদ থেকে ইস্তফা দিতে প্রস্তুত, মক্কেলের হয়ে জানালেন পার্থর আইনজীবী
HE IS WILLING TO RESIGN FROM THE POST OF MLA TOO” says his counsel before court

নজরবন্দি ব্যুরোঃ শিক্ষাক্ষেত্রে নিয়োগ দুর্নীতিতে অভিযুক্ত পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে আজ ব্যাঙ্কশাল আদালতে পেশ করা হয়েছে। আজও ফের পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে হেফাজতে নেওয়ার জন্য আদালতের কাছে অনুরোধ জানাচ্ছেন ইডির আইনজীবীরা। এরই মধ্যে আদালতে শুনানি চলাকালীন বিস্ফোরক মন্তব্য করে বসলেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের আইনজীবী। তিনি বলেন, বিধায়কপদ থেকে ইস্তফা দিতে প্রস্তুত তাঁর মক্কেল।

আরও পড়ুনঃ Partha-Arpita: ভূতে রেখে গিয়েছে টাকা, পার্থ চেনেন না অর্পিতাকে! সবই ঠিক ছিল, শুধু বাদ সাধল…

তিনি বলেন, স্কুল সার্ভিস কমিশনের নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় শিকার হয়েছেন। এখন বিধায়ক পদ ছাড়া তাঁর কাছে কিছু নেই। এখন বিধায়ক পদ থেকে ইস্তফা দিতে চান তিনি। উনি এখন একজন সাধারণ নাগরিক।

বিধায়কপদ থেকে ইস্তফা দিতে প্রস্তুত, আদালতকে পার্থর মনের কথা বললেন আইনজীবী 
বিধায়কপদ থেকে ইস্তফা দিতে প্রস্তুত, আদালতকে পার্থর মনের কথা বললেন আইনজীবী

পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের আইনজীবীর যুক্তি, এখনও অবধি পার্থর কাছে থেকে কোনও সম্পত্তি উদ্ধার করেনি ইডি। তিনি ঘুষ নেননি এবং কোনও প্রমাণ মেলেনি। সমস্ত ডিড যা উদ্ধার হয়েছে তা নকল। এমনকি অর্পিতা মুখ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে তাঁর কোনও পার্টনারশিপ নেই।

একইসঙ্গে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের আইনজীবী জামিনের আবেদন জানিয়ে বলেন, আমার বিরুদ্ধে ইডির তরফে বলা হচ্ছে আমি প্রভাবশালী।আমি এখন কিন্তু প্রভাবশালী নই।আমি এখন বিধায়ক পদে রয়েছি। এমনকি সেই বিধায়ক পদ থেকে ইস্তফা দিতেও প্রস্তুত। কিন্তু ২০১২ সাল থেকে পার্থ চট্টোপাধ্যায় এবং অর্পিতা মুখ্যোপাধ্যায়ের একাধিক জয়েন্ট পার্টনারশিপ দেখা গেছে। এখন জামিন মেলে কিনা সেটাই দেখার।

বিধায়কপদ থেকে ইস্তফা দিতে প্রস্তুত, আদালতকে পার্থর মনের কথা বললেন আইনজীবী 

বিধায়কপদ থেকে ইস্তফা দিতে প্রস্তুত, আদালতকে পার্থর মনের কথা বললেন আইনজীবী 
বিধায়কপদ থেকে ইস্তফা দিতে প্রস্তুত, আদালতকে পার্থর মনের কথা বললেন আইনজীবী

উল্লেখ্য, শিক্ষাক্ষেত্রে নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে একটানা জিজ্ঞাসাবাদ করছেন ইডির আধিকারিকরা। এরই মধ্যে তৃণমূলের সমস্ত পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে তাঁকে। একইসঙ্গে সমস্ত মন্ত্রীপদ থেকেও তাকেসরিয়ে দেওয়া হয়েছে। তদন্ত চলাকালীন তাঁকে দল থেকে বরখাস্ত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে তৃণমূল। দলের এই পদক্ষেপ এখন ষড়যন্ত্র বলেই অভিহিত করেছেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়। কিন্তু কীসের ষড়যন্ত্র, কার ষড়যন্ত্র সেবিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানাননি।