পাকিস্তানে হিন্দু মন্দির ভাঙার ঘটনায় দোষী ২২ জনের পাঁচ বছর জেল

পাকিস্তানে হিন্দু মন্দির ভাঙার ঘটনায় দোষী ২২ জনের পাঁচ বছর জেল
পাকিস্তানে হিন্দু মন্দির ভাঙার ঘটনায় দোষী ২২ জনের পাঁচ বছর জেল

নজরবন্দি ব্যুরোঃ পাকিস্তানের পঞ্জাব প্রদেশে একটি হিন্দু মন্দির ভাঙার ঘটনায় দোষী সাব্যস্ত ২২ জনের পাঁচ বছর করে জেলের সাজা হল। বুধবার সে দেশের বিশেষ সন্ত্রাসদমন আদালত এই রায় ঘোষণার পরে সাজাপ্রাপ্ত অপরাধীদের পাঠানো হয় বহাবলপুর সেন্ট্রাল জেলে।

আরও পড়ুনঃ ভারতীয় অর্থনীতির রক্তক্ষয় অব্যাহত, ফের কমলো টাকার দাম

মন্দিরে হামলার ঘটনার পরেই সক্রিয় হয়েছিল পাকিস্তানের সুপ্রিম কোর্ট। স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে বিষয়টি নিয়ে মামলা করে সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করে পাকিস্তানের তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সরকারের।

পাকিস্তানে হিন্দু মন্দির ভাঙার ঘটনায় দোষী ২২ জনের পাঁচ বছর জেল

সরকার ও স্থানীয় প্রশাসনকে দ্রুত ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দেয় সে দেশের শীর্ষ আদালত। বিষয়টি নিয়ে পাকিস্তান সরকারের কাছে কড়া প্রতিক্রিয়া জানায় ভারতও। এর পরে এই ঘটনার নিন্দা করেন তৎকালীন ইমরান সরকার।

পাকিস্তানে হিন্দু মন্দির ভাঙার ঘটনায় দোষী ২২ জনের পাঁচ বছর জেল

পাকিস্তানে হিন্দু মন্দির ভাঙার ঘটনায় দোষী ২২ জনের পাঁচ বছর জেল

এবং কথা দেন দোষীদের শাস্তি দেওয়া হবে। হামলার ভিডিয়ো দেখে চিহ্নিত করে গ্রেফতার করা হয় ৯০ জনকে। মোট ১৫০ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়। হিন্দু মন্দির ধ্বংসের প্রতিবাদে পাক পার্লামেন্টে পাশ হয় নিন্দা প্রস্তাব।

পাকিস্তানে হিন্দু মন্দির ভাঙার ঘটনায় দোষী ২২ জনের পাঁচ বছর জেল