নিরাপদ অক্সফোর্ডের করোনা ভ্যাকসিন। ফেজ-৩ ট্রায়ালের অনুমতি দিল ICMR।

নিরাপদ অক্সফোর্ডের করোনা ভ্যাকসিন। ফেজ-৩ ট্রায়ালের অনুমতি দিল ICMR।

নজরবন্দি ব্যুরোঃ নিরাপদ অক্সফোর্ডের করোনা ভ্যাকসিন। ফেজ-৩ ট্রায়ালের অনুমতি দিল ICMR। ভারতে অক্সফোর্ডের তৈরি করোনার প্রতিষেধক কোভিশিল্ডের দ্বিতীয় এবং তৃতীয় তথা চূড়ান্ত পর্যায়ের ট্রায়াল শুরু হতে না হতেই স্থগিত হয়ে গিয়েছিল। ভ্যাকসিন নিয়ে সেচ্ছাসেবক অসুস্থ হয়ে পড়ায় সেরাম ভারতেও ট্রায়াল বন্ধ করে দেওয়ার ঘোষণা করে। এর আগে খবর ছিল মাত্র ৫৮ দিনের মধ্যেই চুড়ান্ত ট্রায়াল শেষ হবে আর তারপরই বিনা পয়সায় ভারতবাসী পাবে এই ভ্যাকসিন। কিন্তু এবার ফের এল সুখবর।

আরও পড়ুনঃ করোনা আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ঊষা, কোয়ারেন্টাইনে সুর্যকান্ত মিশ্র।

শীঘ্রই করোনা ভ্যাকসিনের ফেজ-৩ ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল শুরু করবে সেরাম ইন্সটিটিউট অফ ইন্ডিয়া। গত শনিবার যাবতীয় চিন্তার অবসান ঘটিয়ে ব্রিটিশ-সুইডিশ ফার্ম অ্যাস্ট্রজেনেকা জানিয়ে দিয়েছে সব রকম পরীক্ষা সাফল্যের সাথে উতরেছে অক্সফোর্ডের করোনা ভ্যাক্সিন কোভিশিল্ড। অ্যাস্ট্রাজেনেকা জানিয়েছে, “বিশ্বজুড়ে সর্বত্র বন্ধ হয়ে গিয়েছিল ট্রায়াল। ব্রিটিশ কমিটি বিষয়টি তদন্তের জন্য MHRAতে পাঠিয়েছিল। MHRA তদন্তের পর ফের ট্রায়াল চালুতে অনুমতি দিয়েছে।”

উল্লেখ্য আমেরিকাতে প্রায় ৩০ হাজার স্বেচ্ছাসেবকের উপর এই টিকার তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল চালাচ্ছিল ব্রিটিশ-সুইডিশ ফার্ম অ্যাস্ট্রজেনেকা। কিন্তু ট্রায়ালের মাঝেই এক মহিলা স্বেচ্ছাসেবক গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়ার ফলে বন্ধ করে দেওয়া হয় ট্রায়াল। সেচ্ছাসেবিকা টিকা নেওয়ার পরে তাঁর শরীরে স্নায়বিক রোগের লক্ষণ দেয়। তবে এখন তিনি প্রায় সুস্থ হয়ে উঠেছেন। চিকিৎসকদের দাবি তিনি ট্রান্সভার্স মায়েলিটিস (Transverse myelitis) রোগে আক্রান্ত হয়েছিলেন। 

মেডিসিনস হেলথ রেগুলেটরি অথরিটি (MHRA) এই টিকা পরীক্ষার অনুমোদন দেওয়ার পর ফের ভরসা জেগেছে সমগ্র বিশ্ববাসীর মধ্যে। ওই ওষুধ পরীক্ষার পর জানানো হয়েছে, কোভিশিল্ড সম্পূর্ণ নিরাপদ। ভারতেও এই টিকার তৃতীয় অর্থাৎ চূড়ান্ত পর্যায়ের ট্রায়ালের অনুমতি দিয়ে দিয়েছে  Indian Council of Medical Research (ICMR)।  ICMR জানিয়েছে এই মুহূর্তে ভারতে তিনটি ভ্যাকসিন ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের পর্যায়ে রয়েছে। এর মধ্যে Cadila Healthcare ও Bharat Biotech-এর তৈরি ভ্যাকসিন প্রথম ধাপের ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল পেরিয়ে গিয়েছে। কিন্তু সিবথেকে এগিয়ে সেরাম ইন্সটিটিউট। 

নিরাপদ অক্সফোর্ডের করোনা ভ্যাকসিন। ফেজ-৩ ট্রায়ালের অনুমতি দিল ICMR। সেরামের হার ধরেই তাই বিশ্বের সবথেকে আশাপ্রদ ভ্যাকসিন কোভিশিল্ডের চূড়ান্ত পর্যায়ের ট্রায়াল হতে চলেছে দেশে, জানা গেছে সব ঠিক থাকলে চলতি বছরের শেষ মাসে বাজারে চলে আসবে করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন। তবে সেরাম কর্তা আদর পুনাওয়ালা জানিয়েছেন বিশ্বের সবার কাছে ভ্যাকসিন পৌঁছাতে কমপক্ষে ৫ বছর সময় লাগবে!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x