‘বেসুরো’ বিধায়ক প্রবীর ঘোষাল, দলের শীর্ষ নেতৃত্বের প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ

‘বেসুরো’ বিধায়ক প্রবীর ঘোষাল, দলের শীর্ষ নেতৃত্বের প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ

নজরবন্দি ব্যুরো: ‘বেসুরো’ বিধায়ক প্রবীর ঘোষাল, দলের শীর্ষ নেতৃত্বের প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ। এবার বেসুরো উত্তরকন্য়ার তৃণমূল বিধায়ক প্রবীর ঘোষাল। সংগঠনের কাজ নিয়ে রীতিমতো সংবাদমাধ্যমের সামনে ক্ষোভ প্রকাশ করলেন তিনি। জানালেন, দলের সংগঠনে এতো বদল আনা হলে, আদৌ কতটা লাভ হয়েছে।

এদিন তিনি বলেন, উন্নয়নে অনেক ঘাটতি থেকে গিয়েছে। বিধানসভা নির্বাচনের আগে সমাধান না করতে পারলে অনেক সমস্যা হতে পারে। প্রসঙ্গত গত কয়েকদিনে বেশ কয়েকজন তৃণমূলের নেতা-নেত্রী দলের শীর্ষ নেতৃত্বের কাজের প্রতি হতাশা প্রকাশ করেছেন। তালিকায় ছিলেন শতাব্দী রায়ও। তিনি  সরাসরি জানিয়েছিলেন, এলাকায় তিনি কাজ করতে পারছেন না। জল্পনা শুরু হয় তাঁর দিল্লি যাত্রা নিয়েও। সেইসঙ্গে দিল্লিতে গিয়ে অমিত শাহের সঙ্গে দেখা করার জল্পনাও শুরু হয়। এই বিষয়ে প্রথমে ইঙ্গিতপূর্ণ বার্তাও দেন এই সাংসদ। কিন্তু পরে রাতেই ভোলবদলে যান তিনি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে বৈঠকের পর। ওই বৈঠকের পরে শতাব্দী দাবি করেন, কোনও সমস্যা নেই। তৃণমূলেই রয়েছেন তিনি।

আরও পড়ুন: ফের অপসারণ, এবার জেলার চেয়ারম্যান পদ থেকে অপসারিত হলেন মোয়াজ্জেম হোসেন

‘বেসুরো’ বিধায়ক প্রবীর ঘোষাল, দলের শীর্ষ নেতৃত্বের প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ । আবার তৃণমূল সাংসদ প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়  দলের শীর্ষ নেতাদের উপর অসন্তোষ প্রকাশ করেন। সাংবাদিকদের জানান, এখানে দলের কোনও পরিবর্তন কিংবা কর্মসূচি হলে, তাকে বলাই হয় না। এই বিষয়ে যখন আমার কর্মীরা জিজ্ঞাসা করলে তাতে আমি বিব্রত বোধ করছি। যে আমি দলের গৃহীত সিদ্ধান্ত সম্পর্কে অবগত নই। আমাদের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঠিক আছেন, কিন্তু দলের আরও শীর্ষনেতাদের এ বিষয়ে ভাবনা চিন্তা করা প্রয়োজন। কোনও কিছু হলে আমাকে জানতে হয় সংবাদমাধ্যমের থেকে কিংবা ছোট রাজনৈতিক কর্মীর থেকে। এর মাধ্যমে আমি দলের নেতাদের জানাতে  চাইছি যে হাওড়াতে দলের কোনও কর্মসূচি হলে আমাকে যেন অবগত করা হয়। না হলে আমি বিব্রত বোধ করছি। সেইসঙ্গে সৌমিত্র খাঁয়ের মন্তব্যকে নসাৎ করেন তিনি। কয়েকদিন আগেই বিজেপি নেতা সৌমিত্র খাঁ দাবি করেন প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায় বিজেপিতে আসবেন। সেই প্রসঙ্গে এদিন প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, সৌমিত্র খাঁয়ের সঙ্গে আমার কোনওগিন কথাই হয়নি। আর আমি বিজেপিতে যাচ্ছি না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x