অযথা বিক্ষোভ নয়, আদালতের নির্দেশ মেনেই হবেই শিক্ষক নিয়োগ, বার্তা পার্থর

অযথা বিক্ষোভ নয়, আদালতের নির্দেশ মেনেই হবেই শিক্ষক নিয়োগ, বার্তা পার্থর

নজরবন্দি ব্যুরোঃ টেট এবং এসএসসি-তে উত্তীর্ণ হওয়া সত্ত্বেও নিয়োগ এখনও অধরা। ফলে রাজ্যের প্রাথমিক ও উচ্চপ্রাথমিক শিক্ষক পদে চাকরিপ্রার্থীদের ধৈর্যের বাঁধ ভেঙেছে চাকরী প্রার্থীদের। ফলে দ্রুত নিয়োগের দাবি তুলে বিক্ষিপ্ত আন্দোলনে নেমেছেন তাঁরা। এই পরিস্থিতিতেই রবিবার তাঁদের উদ্দেশ্যেই কড়া বার্তা দিলেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। এদিন তিনি সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে তিনি বললেন, “এসএসসি চাকরিপ্রার্থীদের হাই কোর্টের (Calcutta HC) নিয়ম অনুযায়ী নিয়োগ হবে। শিক্ষাদপ্তর এবং বোর্ড হাই কোর্টের নিয়ম অনুযায়ী কাজ করছে। তাই অযথা বিক্ষোভ দেখিয়েও কিছু করা যাবে না।“

আরও পড়ুনঃ গুজরাটের পর্যটক টানতে বড় পদক্ষেপ কেন্দ্রের! আমেদাবাদ-কেভাডিয়া রুটে চলবে অত্যাধুনিক ট্রেন।

এদিন তিনি বলেন, আগামী ৩ ফেব্রুয়ারির মধ্যে রাজ্যের স্কুলগুলিতে সাঁওতালি ভাষার (অলচিকি হরফ) ৪৭৫ জন শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ করা হবে। ৩১ জানুয়ারির টেট (TET) নিয়ে শিক্ষামন্ত্রী জানান, ১৬,৫০০ শূন্যপদে নিয়োগের জন্য ওই দিন রাজ্যের ২২টি কেন্দ্রে নেওয়া হবে অফলাইন পরীক্ষা। অর্থাৎ পরীক্ষাকেন্দ্রে গিয়ে পরীক্ষায় বসতে হবে আবেদনকারীদের। পরীক্ষা চলবে দুপুর ১ টা থেকে সাড়ে তিনটে পর্যন্ত। এদিনের পরীক্ষায় বসতে চলেছেন আড়াই লক্ষ আবেদনকারী। করোনা পরিস্থিতিতে অফলাইন পরীক্ষা নেওয়ার জন্য থাকছে বিশেষ সুরক্ষা ব্যবস্থা। তাই অনেক আগে থেকে নির্দিষ্ট ২২ টি কেন্দ্রকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। ফলে স্বাস্থ্যবিধি মেনেই সম্পন্ন হবে এই প্রক্রিয়া।

স্কুলে শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া তো এগিয়ে চলেছে। কিন্তু রাজ্যে কবে থেকে স্কুল খুলবে? ক্লাসরুমে গিয়ে পড়াশোনা করতে পারবে পড়ুয়ারা? এ বিষয়ে রবিবার শিক্ষামন্ত্রী জানান, “সব স্কুল স্যানিটাইজ করা হচ্ছে। আগে যেসব স্কুল খোলা হয়েছিল, সেগুলো বন্ধ রয়েছে। অনলাইনে পঠনপাঠন চালানো হচ্ছে এখনও। পরিস্থিতি অনুকূল হলে রাজ্য সরকারের সঙ্গে আলোচনা সাপেক্ষে স্কুল খোলার সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।“

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x