এভাবে চললে পরিস্থিতি নাগালের বাইরে চলে যাবে, রাজ্যে জারি আরও কঠোর নাইট কার্ফু

এভাবে চললে পরিস্থিতি নাগালের বাইরে চলে যাবে, রাজ্যে জারি আরও কঠোর নাইট কার্ফু
এভাবে চললে পরিস্থিতি নাগালের বাইরে চলে যাবে, রাজ্যে জারি আরও কঠোর নাইট কার্ফু

নজরবন্দি ব্যুরোঃ করোনাকে হালকা ভাবে নিচ্ছেন রাজ্যের মানুষ, এভাবে চললে পরিস্থিতি নাগালের বাইরে চলে যাবে। আশঙ্কা প্রকাশ করলেন মুখ্যসচিব হরেকৃষ্ণ দ্বিবেদী। বাংলায় জারি থাকা বিধি নিষেধে সামান্য ছাড় মিলতেই জনগন ভুলতে বসেছেন করোনার আতঙ্ক, তাঁর ভয়াবহতা। বিধি শিকেয় তুলে রাস্তা ঘাটে যথেচ্ছ মানুষের আনাগোনা। লোকসমাগমের সাথে হৈ হুল্লোড় পার্টি কিছুই বাদ নেই।

আরও পড়ুনঃ তৃণমূলের সঙ্গে জোট! বিমানের যুক্তিতে অবাক সুজনের মুখে সেই ‘বিজেমূল’ তত্ব

এই পরিস্থিতিতে রাজ্যের মুখ্যসচিব কড়া চিঠি দিলেন জেলা শাসকদের। জেলা শাসকদের লেখা চিঠিতে মুখ্যসচিব এক যায়গায় বলেছেন, ‘এখনই ব্যবস্থা না নিলে আগামীতে পরিস্থিতি নাগালের বাইরে চলে যাবে।’ ১৫ই জুলাই থেকে কিছুটা শিথিল হয়েছে লকডাউনের বিধি নিষেধ। জারি হয়েছে নাইট কার্ফু। কিন্তু করোনা ভাইরাসের আতঙ্ক যেন সাধারণ মানুষের গা সওয়া হয়ে গিয়েছে।

কার্ফু উপেক্ষা করে রাতভোর পার্টি চলেছে খোদ কলকাতাতেই। সার্বিক ভাবে রাজ্যের করোনা পরিস্থিতি খতিয়ে দেখে উদবিঘ্ন নবান্ন। মুখ্যসচিব উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন নাইট কার্ফুর বাস্তবায়ন নিয়ে। জেলা শাসকদের সাফ জানানো হয়েছে রাজ্য জুড়ে নাইট কার্ফু কঠোর ভাবে বলবৎ করতে হবে। রাত ৯টা থেকে ভোর ৫ টা পর্যন্ত মানতে হবে যাবতীয় বিধি নিষেধ।

নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, রাস্তায় নাকাচেকিং আরও বাড়াতে হবে। রাতে জারি কোভিডবিধি ভাঙলেই অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে কড়া শাস্তিমূলক পদক্ষেপ করতে হবে। এছাড়াও নজরদারিতে আবগারি বিভাগকেও সক্রিয় হতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। হোটেল, বার, রেস্তোরাঁয় নজরদারি চালাবে তারা।

এভাবে চললে পরিস্থিতি নাগালের বাইরে চলে যাবে, রাজ্যে জারি আরও কঠোর নাইট কার্ফু

এভাবে চললে পরিস্থিতি নাগালের বাইরে চলে যাবে, রাজ্যে জারি আরও কঠোর নাইট কার্ফু

নবান্ন জানতে পেরেছে রাজ্য জুড়েই মানা হচ্ছে না নাইট কার্ফু। রাত ৯টার পরেও খোলা থাকছে দোকান বাজার। রাস্তায় বেরোচ্ছেন মানুষ। চলছে পার্টি। হিসেব বলছে শুধু কলকাতাতেই নিয়ম ভাঙার জেরে ৮০০ জনের বিরুদ্ধে মামলা রুজু করা হয়েছে। এদিকে গতকাল রাজ্যের স্বাস্থ্য দপ্তরের তথ্য অনুযায়ী, ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৬৫৭ জন। এ নিয়ে রাজ্যে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ১৫ লক্ষ ২৪ হাজার ২৯৬ জন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here