শুভ্রাংশু-র কলার টিউনে বাজছে বিদায়ের সুর, পিতা-পুত্র প্রত্যাবর্তনের ইঙ্গিত দিলেন সৌগত।

শুভ্রাংশু-র কলার টিউনে বাজছে বিদায়ের সুর, পিতা-পুত্র প্রত্যাবর্তনের ইঙ্গিত দিলেন সৌগত।
শুভ্রাংশু-র কলার টিউনে বাজছে বিদায়ের সুর, পিতা-পুত্র প্রত্যাবর্তনের ইঙ্গিত দিলেন সৌগত।

নজরবন্দি ব্যুরোঃ শুভ্রাংশু-র কলার টিউনে বাজছে বিদায়ের সুর, পিতা-পুত্র প্রত্যাবর্তনের ইঙ্গিত দিলেন সৌগত রায়। মুকুলের প্রতি নির্বাচিত সরকারের সমালোচনা করার আগে নিজেদের সমালোচনা করা উচিত, বিজেপি-কে হুঙ্কার দিয়ে তৃণমূলের পাশে দাঁড়িয়েছেন বিজেপি সর্বভারতীয় সহ সভাপতি মুকুল রায়ের পুত্র শুভ্রাংশু রায়। আজ দীপেন্দু বিশ্বাস দলে ফিরতে চেয়ে চিঠি পাঠিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে। ইতিমধ্যেই তৃণমূল ছেড়ে BJP-তে যাওয়া সোনালি গুহ, সরলা মুর্মু, বাচ্চু হাঁসদারা ফের তৃণমূলে ফিরতে চেয়েছেন।

আরও পড়ুনঃ বেহালা চৌরাস্তায় হামলা বৈশালী ডালমিয়ার ছেলের ওপর, চুরমার গাড়ি, রক্তাক্ত ছেলে

এদিকে সোমবার দল ছেড়ে বেরিয়ে যাওয়া নেতাদের ফেরার ইচ্ছা প্রকাশ নিয়ে তীব্র কটাক্ষ করেন সৌগত রায়। বলেন ‘তৃণমূল তো দোকান নয়, যে যখন ইচ্ছে চলে আসবে’। তবে শুভ্রাংশু এবং মুকুল রায় কে নিয়ে নরম মনোভাব দেখান তিনি। শুভ্রাংশুর পোস্ট প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “ও তো একসময় আমাদের দলেই ছিল। ওর খুব খারাপ লেগেছে হয়তো। তবে ভালো, ওর শুভবুদ্ধি জেগেছে”। শুভ্রাংশু কে স্নেহের পাত্র হিসেবে ব্যাখ্যা করে সৌগত বাবু বলেন, “ও আমাদের স্নেহের পাত্র। কত ছোট। ওর বাবাই তো আমাদের থেকে ছোট”।

গতকাল একই প্রসঙ্গে তৃণমূলের সাংসদ সুখেন্দুশেখর রায় বলেছিলেন, “বিজেপির অনেকেই আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করছে। তাঁদেরও ওঁর মতনই মনে হয়েছে। ক-জন যোগদান করবেন আমি জানি না। তবে অনেকেই যোগদান করেছেন এটা বলতে পারি।” তৃণমূল সূত্রে খবর আগামী ৫ই জুন দলীয় বৈঠকে চমক থাকবে। কমপক্ষে ৫ জন সাংসদ, ৪ জন বিজেপি নেতা নেত্রী এবং ৭ জন বিধায়ক ইতিমধ্যেই তৃণমূলে যোগ দিতে চেয়েছেন। তাঁদের নিয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন নেত্রী।

এদিকে শুভ্রাংশুর পোস্ট ব্রম্ভাস্ত্রর মত বিঁধেছে বিজেপির অন্দরমহলে। বীজপুর আসনে শুভ্রাংশু তৃণমূল প্রার্থীর কাছে হেরে গিয়েছেন ‘২১ নির্বাচনে। বিজেপির লোকসভা জয়ের কাণ্ডারী মুকুল রায়কে কার্যত বসিয়ে দেওয়া হয় বিধানসভা নির্বাচনে। একপ্রকার বাধ্য করা হয় কৃষ্ণনগর উত্তর থেকে প্রার্থী হওয়ার। বিজেপির ভরাডুবির মধ্যেই নিজের আসনে জিতেছেন মুকুল। কিন্তু জেতাতে পারেননি পুত্রকে। প্রসঙ্গত, শনিবারই বিজেপি-র সংখ্যালঘু মোর্চার সহ-সভাপতির পদ ছেড়েছেন মুকুল রায়-ঘনিষ্ঠ কাশেম আলি। ২০১৭ সালে মুকুলের সঙ্গেই বিজেপি-তে যোগ দিয়েছিলেন কাশেম। ঘটনাচক্রে, সেই একই দিনে এই পোস্ট করেছেন শুভ্রাংশু।

শুভ্রাংশু-র কলার টিউনে বাজছে বিদায়ের সুর, কর্ণ জোহর পরিচালিত রণবীর কপূর-অনুষ্কা শর্মা অভিনীত ‘অ্যায় দিল হ্যায় মুশকিল’ ছবির বিখ্য়াত গান ‘আচ্ছা চলতা হুঁ, দুয়াঁও মে ইয়াদ রাখনা’। ভোটে পরাজয়ের পর তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যাওয়া অনেকেই বেসুরো হতে শুরু করেছেন, অনেকে ফেরার আবেদন করে ওয়েটিং লিস্টে রয়েছেন, অনেকে আবার ইঙ্গিত দিচ্ছেন। উল্লেখ্য, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ভোট পর্বের মধ্যেই মুকুল রায়ের সুনাম করেছিলেন। ফল বেরোনোর পর বার্তা দিয়েছেন দল থেকে বেরিয়ে যাওয়া নেতাদের। যারা ঘরে ফিরতে চায় আসতে পারে!

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here