কুম্ভমেলায় ভুয়ো করোনা রিপোর্ট লাখের বেশি, হিসেব মেলাতে ফোন যাচ্ছে জনে জনে

কুম্ভমেলায় ভুয়ো করোনা রিপোর্ট লাখের বেশি, হিসেব মেলাতে ফোন যাচ্ছে জনে জনে
কুম্ভমেলায় ভুয়ো করোনা রিপোর্ট লাখের বেশি, হিসেব মেলাতে ফোন যাচ্ছে জনে জনে

নজরবন্দি ব্যুরো: কুম্ভমেলায় ভুয়ো করোনা রিপোর্ট লাখের বেশি, সেই নিয়েই এবার মাথায় হাত উত্তরাখণ্ড প্রশাসনের। করোনা কালের কুম্ভ মেলা সুপার স্প্রেডার, একথা অনেক আগেই বলা হয়েছিল। এবার সেই মেলা নিয়েই উঠে আসছে গুচ্ছের বেনিয়মের তালিকা। গিজগিজে ভিড়ে বেনিয়ম ভুয়ো রিপোর্ট সব মিলিয়ে চিন্তায় ফেলছে কুম্ভমেলা।

আরও পড়ুনঃ দিলীপ গিয়েছেন দিল্লি, প্রসঙ্গে বঙ্গ BJP-র তিন গোষ্ঠীর বর্ণনা দিচ্ছেন কুণাল

সিঁদুরে মেঘ দেখেও ব্যবস্থা গ্রহণ করতে সময় লেগেছিল বিস্তর। করোনা কালে ব্যাপক ভিড় দেখে চোখ কপালে উঠেছিল সকলের।এবার উঠে আসছে তার থেকেও বড় চাঞ্চল্যকর তথ্য। সূত্রের খবর কুম্ভমেলায় আসা সাধুদের করোনা পরীক্ষার দায়িত্বে থাকা বেসরকারি
ল্যাব ম্যাক্স কর্পোরেট সার্ভিস বড়সড় বেনিয়ম ঘটিয়েছে নিজেদের কাজে।

কুম্ভমেলায় ভুয়ো করোনা রিপোর্ট লাখের বেশি, কপালে ভাঁজ উত্তরাখণ্ড প্রশাসনের।

দিন কয়েক আগেই উঠেছিল বেনিয়মের অভিযোগ, তবে খতিয়ে দেখতে গিয়ে মাথায় হাত উত্তরাখণ্ড প্রশাসনের। সামনে এসেছে ওই বেসরকারি সংস্থার একাধিক দুর্নীতি। উত্তরাখণ্ড প্রশাসনের মতে কুম্ভমেলায় অন্তত ১ লাখ ভুয়ো করোনা রিপোর্ট পেশ করেছে ওই সংস্থা। অনেকক্ষেত্রে দেখা গিয়েছে যাদের নামে রিপোর্ট তৈরি হয়েছে তাঁরা যাননি কুম্ভতে। কোন ক্ষেত্রে আবার দাবি করা হয়েছে একটি কিট থেকেই পরীক্ষা করা হয়েছে ৭০০ জনের।

এখানেই শেষ নয়, উঠে এসেছে আরও মারাত্মক তথ্য। নিজেদের টার্গেট পূরণ করতে কিছু ক্ষেত্রে একই মোবাইল নাম্বার থেকে ৫০ জন পর্যন্ত মানুষের নাম নথিভুক্ত করেছে। সব দেখে চক্ষু চড়ক গাছ প্রশাসনের। ধোঁয়াশা কাটাতে এবার ১ লাখ মানুষকে ফোন করার ব্যাবস্থা নিয়েছে সরকার।
ইতিমধ্যে কাজের জন্য গঠন করা হচ্ছে ৮ জনের একটি বিশেষ কমিটি। প্রাথমিক ভাবে জনে জনে ফোন করবেন তাঁরা। তার পরেই তদন্ত করবেন জমা পড়া বাকি দুর্নীতির অভিযোগে আর উঠে আসা বেনিয়ম নিয়ে।

কুম্ভমেলায় ভুয়ো করোনা রিপোর্ট লাখের বেশি, কপালে ভাঁজ উত্তরাখণ্ড প্রশাসনের।
কুম্ভমেলায় ভুয়ো করোনা রিপোর্ট লাখের বেশি, কপালে ভাঁজ উত্তরাখণ্ড প্রশাসনের।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here