আক্রান্ত মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ।করোনার জেরে নবান্ন ছাড়ছেন মমতা।

আক্রান্ত মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ।করোনার জেরে নবান্ন ছাড়ছেন মমতা।

নজরবন্দি ব্যুরোঃ আক্রান্ত মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ। নবান্ন ছাড়ছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা। মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার পর প্রথমবার নবান্ন ছাড়ছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। নবান্নে লাগামহীন সংক্রমণের জেরে এই সিদ্ধান্ত। সাময়িকভাবে নবান্ন থেকে মুখ্যমন্ত্রীর দপ্তর উপান্নতে স্থানান্তরিত করা হচ্ছে বলে খবর। মুখ্যমন্ত্রীর দপ্তর যেখানে সেই ১৪ তলাতেই করোনা ভাইরাস এর সংক্রমণ ধরা পড়েছে বলেই সতর্কতামূলক ভাবে এই ব্যাবস্থা গ্রহন। অন্যদিকে এদিন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন রাজ্যের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রী।

আরও পড়ুনঃ ডিসেম্বরে টিকা মিলবে ভারতে। ২০ টি দেশ থেকে ভ্যাকসিনের অর্ডার পেল রাশিয়া।

আক্রান্ত মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ। রাজ্যের ক্ষুদ্র, মাঝারি ও কুটির শিল্পমন্ত্রী স্বপন দেবনাথ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। গত কয়েকদিন ধরেই অসুস্থ ছিলেন তিনি। চিকিৎসকরা সন্দেহ করায় সোমবার তাঁর সোয়াব টেস্ট করা হয়। মঙ্গলবার রিপোর্ট এলে দেখা যায় তিনি করোনা পিজিটিভ। আপাতত হাসপাতালে ভর্তি করা হচ্ছে না তাঁকে। হোম আইশোলেশনে রেখেই তাঁর চিকিৎসা চলবে বলে জানা গিয়েছে।

অন্যদিকে আজকের বুলেটিনে রাজ্য সরকার জানিয়েছে গত ২৪ ঘন্টায় করোনা ভাইরাসে সংক্রামিত হয়েছে ২ হাজার ৯৩১ জন। আজকের ২ হাজার ৯৩১ জন কে নিয়ে রাজ্যের মোট আক্রান্ত সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১ লক্ষ ১ হাজার ৩৯০। এই বিপুল আক্রান্তের মধ্যে এখন চিকিৎসাধীন রয়েছেন ২৫ হাজার ৮৪৬ জন। যা গতকালে থেকে ১৮৫ জন কমেছে। এখন পর্যন্ত রাজ্যে মৃত্যু হয়েছে ২ হাজার ১৪৯ জনের। মৃত ২ হাজার ১৪৯ জনের মধ্যে গত ২৪ ঘন্টায় মারা গিয়েছেন ৪৯ জন। উল্লেখ্য গত ২৪ ঘন্টায় সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৩ হাজার ৬৭ জন। আজকের ৩ হাজার ৬৭ জন কে নিয়ে এখন পর্যন্ত রাজ্যে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৭৩ হাজার ৩৯৫ জন।

এদিনের বুলেটিনে রাজ্য সরকার জানিয়েছে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা ভাইরাসের টেস্ট হয়েছে মোট ২৭ হাজার ১৫ টি। যা নিয়ে রাজ্যের মোট টেস্টের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১১ লক্ষ ৫৯ হাজার ২১১ টি। রাজ্যে প্রতি ১০ লক্ষ মানুষ পিছু টেস্ট হয়েছে ১২ হাজার ৮৮০ জনের। প্রতি ১০০ টি স্যাম্পেল টেস্ট পিছু রাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা ৮.৭৫ শতাংশ। যা বেড়েছে গতকালের থেকে। রাজ্যে করোনা আক্রান্তদের মধ্যে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৭২.৩৯ শতাংশ। গতকাল এবং পরশুর থেকে আজ এক ধাক্কায় বেড়েছে রাজ্যের সুস্থতার হার। গত পরশু সুস্থতার হার ছিল ৭০.২৪ শতাংশ। রাজ্যের করোনা আতঙ্কের মধ্যে স্বস্তির জায়গা এই সুস্থতার হার। দেখুন সার্বিক পরিসংখ্যান

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x