বিরাটের সিদ্ধান্তকে স্বাগত, তবে ইগো না রেখে এগিয়ে যাবার পরামর্শ কপিলের

বিরাটের সিদ্ধান্তকে স্বাগত, তবে ইগো না রেখে এগিয়ে যাবার পরামর্শ কপিলের
বিরাটের সিদ্ধান্তকে স্বাগত, তবে ইগো না রেখে এগিয়ে যাবার পরামর্শ কপিলের

নজরবন্দি ব্যুরো: গত ২০১৪ সালে প্রাক্তন ভারতীয় অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনির কাছ থেকে অধিনায়ক পদ লাভ করার পর থেকেই দীর্ঘ সাত বছরে বিরাট কোহলির হাত ধরে এক অভূতপূর্ব উত্থান ঘটে ভারতীয় টেস্ট ক্রিকেট দলের। খেলোয়াড়দের ফিটনেসের পাশাপাশি বিদেশের মাটিতে জয় প্রায় সবকিছুতেই দেখা দিয়েছে নতুনত্ব।

আরও পড়ুনঃ ‘অধিনায়কত্ব কারও জন্মগত অধিকার নয়’, বিরাট প্রসঙ্গে বললেন গম্ভীর

যত সময় এগিয়েছে একের পর এক জয় উঠে এসেছে বিদেশের মাটি থেকে। অস্ট্রেলিয়ার পাশাপাশি ইংল্যান্ডের মাটি থেকেও জয় তুলে এনেছে মেইন ইন ব্লুজ। তাই এমন ভারতীয় অধিনায়কের জন্য একটি বিদায়ী ম্যাচের আয়োজন করা হয় ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড তথা বিসিসিআইয়ের তরফ থেকে। তবে তা গ্রহণ করতে নারাজ আরসিবির এই ক্রিকেট তারকা।

বিরাটের সিদ্ধান্তকে স্বাগত
বিরাটের সিদ্ধান্তকে স্বাগত

তাঁর অধিনায়কত্ব ছাড়ার পর এবার দলে কিভাবে তাঁর খেলা উচিত সেই নিয়ে এবার মন্তব্য করলেন কপিল দেব। তিনি বলেন, সুনীল গাভাসকর আমার ক্যাপ্টেন্সিতে খেলেছিল। আমি শ্রীকান্ত, আজহারের নেতৃত্বে খেলেছি। আমার কোনও ইগো ছিল না। বিরাটেরও উচিত ওর ইগো সরিয়ে রেখে তরুণ কোনও ক্রিকেটারের ক্যাপ্টেন্সিতে খেলা। এটা ওকে তো বটেই, ভারতীয় ক্রিকেটকেও সাহায্য করবে। আমার তো মনে হয়, বিরাটের উচিত নতুন ক্যাপ্টেন, নতুন প্লেয়ারদের সাহায্য করা। একটা ব্যাপার নিয়ে কোনও দ্বিমত নেই, বিরাটের মতো ব্যাটসম্যানকে আমরা হারাতে পারি না।’

বিরাটের সিদ্ধান্তকে স্বাগত
বিরাটের সিদ্ধান্তকে স্বাগত

বিরাটের টেস্ট অধিনায়কত্ব ছাড়ার সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানাচ্ছেন তিনি। কপিলের কথায়, ‘বিরাটের টেস্ট ক্যাপ্টেন্সি ছাড়ার সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানাচ্ছি। টি-টোয়েন্টি ক্যাপ্টেন্সি ছাড়ার পর থেকে ও কঠিন সময়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছিল। ওকে সাম্প্রতিক কালে মাঠে অনেক বেশি টেনশনে থাকতে দেখেছি। প্রচুর চাপের মধ্যে ছিল। ক্যাপ্টেন্সি ছেড়ে ও কিন্তু অনেক খোলা মনে খেলতে পারবে।’

বিরাটের সিদ্ধান্তকে স্বাগত, ইগো না রেখে এগিয়ে যাবার পরামর্শ কপিলের

উল্লেখ্য, এবারের দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের প্রথম টেস্টে ব্যাপক জয়ের মাধ্যমে ভারতীয় দলের আত্মবিশ্বাস তুঙ্গে থাকলেও শেষ রক্ষা হয়নি। যারফলে দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে ১-২ ব্যবধানে সিরিজ হারের পরই ভারতীয় টেস্ট দলের অধিনায়ক পদ থেকে সরে দাঁড়ানোর কথা শোনা যায় কোহলির তরফ থেকে। সেইমতো ভারতীয় ক্রিকেট কোচ দ্রাবিড়ের সঙ্গে সাময়িক কথা বলার পরই বিসিসিআই সেক্রেটারিকে ফোন করেন এই ভারতীয় টেস্ট অধিনায়ক।