‘গেরুয়াময়’ মানবাধিকার কমিশন কর্তা আতিফ রশিদ! সিংভির টুইটে তোলপাড় রাজ্য রাজনীতি

‘গেরুয়াময়’ মানবাধিকার কমিশন কর্তা আতিফ রশিদ! সিংভির টুইটে তোলপাড় রাজ্য রাজনীতি
‘গেরুয়াময়’ মানবাধিকার কমিশন কর্তা আতিফ রশিদ! সিংভির টুইটে তোলপাড় রাজ্য রাজনীতি

নজরবন্দি ব্যুরোঃ ‘গেরুয়াময়’ মানবাধিকার কমিশন কর্তা আতিফ রশিদ! সম্প্রতি রাজ্যের ভোট পরবর্তী হিংসা পরিস্থিতি নিয়ে কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশে কমিশন যে কমিটি তৈরি করেছে তাতে সক্রিয় ভূমিকা রয়েছে তাঁর।

শুধু তাই নয়, সম্প্রতি কলকাতা হাইকোর্টে মানবাধিকার কমিশন ‘কুখ্যাত দুষ্কৃতী’র যে তালিকা জমা দিয়েছে, যেখানে একাধিক তৃণমূল নেতা মন্ত্রীর নাম উল্লেখ করা হয়েছে, সেই তালিকা তৈরির কমিটিতে দ্বিতীয় নামই আতিফ রশিদের। আর এই নিয়েই এবার তোলপাড় রাজ্য রাজনীতি। আর এই ঘটনায় ঘি ঢেলেছে কংগ্রেস সাংসদ ও আইনজীবী অভিষেক মনু সিংভির একটি টুইট।

আরও পড়ুনঃ ফের শান্তিকুঞ্জে CID, প্রাক্তন দেহরক্ষীর মৃত্যু তদন্তে শুভেন্দুর ঘরে ৪ গোয়েন্দা

টুইটে সিংভি লিখেছেন, বিজেপির ১০টির বেশি পদে থেকেছেন আতিফ রশিদ। ছাত্রজীবনে এই রশিদ ছিলেন এবিভিপি-র নেতা, এছারাও যুব মোর্চারও নেতা ছিলেন আতিফ রশিদ। এমন কি ২০১২ সালে দিল্লির পুরভোটে পদ্মপ্রার্থীও ছিলেন তিনি। আর এখন তিনি জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের সদস্য।

এই রকম একজন মানুষ কিভাবে নিরপেক্ষ হবেন তা নিয়ে উঠে গিয়েছে প্রশ্ন। এখন সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল, ‘আতিফ রশিদ আসলে কে’। এই নিয়ে তৃণমূলের পক্ষ থেকে একাধিকবার দাবি করা হয়েছে , মানবাধিকার কমিশনের পেশ করা রিপোর্ট পক্ষপাতদুষ্ট।

‘গেরুয়াময়’ মানবাধিকার কমিশন কর্তা আতিফ রশিদ! সিংভির টুইটে তোলপাড় রাজ্য রাজনীতি

অপরদিকে এই ঘটনা নিয়ে সামাজিক মাধ্যমে নিজের পক্ষে বক্তব্য পেশ করেছেন আতিফও। তাঁর দাবি, যেদিন থেকে তিনি জাতীয় সংখ্যালঘু কমিশনের ভাইস চেয়ারপার্সন হয়েছেন, সেদিন থেকে তাঁর সঙ্গে কোনও রাজনৈতিক দলের সম্পর্ক নেই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here