কেমন হবে পুজোর মণ্ডপ ? জানাল লালবাজার

নজরবন্দি ব্যুরোঃ গতবছর থেকেই করোনা আবহের মধ্য দিয়ে কাটছে গোটা বছর। গত পুজোর সময় পুরনো রীতি মেনে শহরের সিংহভাগ মণ্ডপ সুসজ্জিত হলেও, করোনার সংক্রমণ কে মাথায় রেখে মণ্ডপের ভিতরে সাধারন মানুষের প্রবেশের ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছিল। যারফলে বাইরে থেকেই প্রতিমা দর্শন করে খুশি থাকতে হয়েছিল সাধারন মানুষ কে। এবছর ও করোনা পরিস্থিতি জারি থাকায় এবার আগে ভাগেই পুজো কমিটি গুলিকে মণ্ডপ তৈরির জন্য বিশেষ নির্দেশিকা জারি করল লালবাজার

আরও পড়ুনঃ ভবানীপুরের ভোটারদের ৪০-২০ শতাংশ ভাগ স্মৃতির, স্পষ্ট মেরুকরণ দেখছে সব মহল

শহরের বাইরে থেকে প্রতিমা দর্শন করতে এসে কোনমতেই যাতে কেই করোনায় আক্রান্ত না হয়ে পড়েন সেবিষয়ে মাথায় রেখেই এবার সম্পূর্ণ খোলামেলা মণ্ডপ তৈরির নির্দেশিকা দেওয়া হয়েছে। সেইসঙ্গে মণ্ডপের ছাদ বাদে  চারপাশের অংশগুলিকে সম্পূর্ণ খোলা রাখার কথা বলা হয়েছে। দূরত্ব বজায় রাখা ও করোনার সংক্রমণ এড়ানোর জন্য জন্য প্রবেশ ও প্রস্থানের পৃথক পৃথক পথ করার ও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এবং গতবারের মতই প্রতিটি পুজো মণ্ডপে দর্শনার্থীদের জন্য পর্যাপ্ত পরিমাণে মাস্ক ও স্যানিটাইজারের ব্যবস্থা করার কথা বলা হয়েছে।

তবে শুধুমাত্র মাস্ক বিতরন করাই নয়, সকলে যাতে সেই মাস্ক পরেন, সেদিকে নজর রাখার জন্য স্বেচ্ছাসেবকদের দায়িত্ব প্রদান করার কথা বলা হয়েছে। তবে পুজো কমিটি গুলির তরফ থেকে দায়িত্ব প্রাপ্ত সেবকদের কোভিডের ডবল ডোজ বাধ্যতামূলক করার কথা জানিয়েছেন পুলিশ কমিশনার সৌমেন মিত্র।

কেমন হবে পুজোর মণ্ডপ ? জানাল পুলিশ 

কেমন হবে পুজোর মণ্ডপ ? জানাল লালবাজার

পাশাপাশি, আগামী ১৮ ই অক্টোবরের মধ্যে সকল পুজো কমিটি গুলিকে দুর্গাপ্রতিমা নিরঞ্জনের নির্দেশিকা দেওয়া হয়েছে। এবং  মণ্ডপ চত্বরে বিদ্যুত্‍স্পৃষ্টর মতো ঘটনা যাতে কোনমতেই না ঘটে সেদিকে নজর রাখার জন্য কমিটিগুলির সঙ্গে সংযুক্ত ইলেকট্রিসিয়ানদের জন্য বিশেষ প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করেছে CESC। সেইসঙ্গে গতবছর এফডি ব্লকের পুজোর ঘটনা কে মাথায় রেখেই অগ্নিনির্বাহের ব্যাপারে ও বাড়তি নজর দেওয়ার কথা বলা হয়েছে।

কেমন হবে পুজোর মণ্ডপ ? জানাল লালবাজার

 

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here