হাতি ঘোড়াকে তলে পাঠিয়ে নবান্নে মাছির অত্যাচারে অতিষ্ঠ মুখ্যমন্ত্রীর জীবাণুনাশক স্প্রে।

হাতি ঘোড়াকে তলে পাঠিয়ে নবান্নে মাছির অত্যাচারে অতিষ্ঠ মুখ্যমন্ত্রীর জীবাণুনাশক স্প্রে।
হাতি ঘোড়াকে তলে পাঠিয়ে নবান্নে মাছির অত্যাচারে অতিষ্ঠ মুখ্যমন্ত্রীর জীবাণুনাশক স্প্রে।

নজরবন্দি ব্যুরোঃ হাতি ঘোড়াকে তলে পাঠিয়ে নবান্নে মাছির অত্যাচারে অতিষ্ঠ মুখ্যমন্ত্রীর জীবাণুনাশক স্প্রে।রাজ্যে ভোটের আগে মোদী-শাহ জুটি বারবার সদর্পে ঘোষণা করেছিলেন ২০০ র বেশী আসন পেয়ে ভোটে জিতবে বিজেপি। কিন্তু এমন শক্তিশালী হাতি ঘোড়াকে প্রায় একার হাতে হারিয়েছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ফল বেরনোর পর বিজেপির সুপার হেভিওয়েটরা তল খুঁজে পাচ্ছিলেন না।

আরও পড়ুনঃ নিঃশব্দে রেলের মাঠ ও স্টেডিয়াম বিক্রি, কেন্দ্রের বিরুদ্ধে ক্ষোভে ফুঁসছে রেলকর্মীরা।

সেই জায়ান্ট কিলার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে শেষে কিনা তীব্র অসন্তুষ্ট করে দিল সামান্য মাছি। ঘটনার সূত্রপাত আজ নবান্নে এক বৈঠক করার সময়। মূলত মাধ্যমিক-উচ্চ মাধ্যমিক বাতিলের ঘোষণা এবং ঝড়ের ফলে ক্ষয়ক্ষতি ও সমস্যার সুরাহা সমাধানের জন্য করা ওই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন ফিরহাদ হাকিম, চন্দ্রিমা ভট্টাচার্যের মতো একাধিক মন্ত্রী। হাজির ছিলেন রাজ্যের মুখ্যসচিব-সহ একাধিক উচ্চ পর্যায়ের আধিকারিকরা। এমন সময় বৈঠকের মাঝে বিরক্তির কারণ হয়ে ওঠে এক মাছি। বৈঠকে কথা বলতে বলতেই মমতা আচমকা বলে ওঠেন, ‘‘উফ্! এখানে এত মাছি এল কোথা থেকে!’’

বলতে বলতেই মমতা টেবিলের নীচে রাখা জীবাণুনাশক স্প্রে-র আধারটি তুলে নিয়ে স্প্রে করতে শুরু করেন। বৈঠক করতে করতেই বেশ কিছুক্ষণ স্প্রে করে মাছি তা়ড়ান তিনি। কিন্তু তার পরেও মাছি যায়নি। আরও কয়েক বার স্প্রে করে মাছি তাড়ান মুখ্যমন্ত্রী মমতা। একটা সময়ে দৃশ্যতই বিরক্ত মমতা বলে ওঠেন, ‘‘এখানে এত মাছি কী করে এল! কারা দেখে এ সব!’’

হাতি ঘোড়াকে তলে পাঠিয়ে নবান্নে মাছির অত্যাচারে অতিষ্ঠ মুখ্যমন্ত্রীর জীবাণুনাশক স্প্রে। উপস্থিত মন্ত্রীরা মুখ চাওয়াচাওয়ি করতে থাকলেও সদুত্তর দিতে পারে না। বৈঠক চালাতে চালাতেই বেশ করেক বার স্প্রে করে মুখ্যমন্ত্রী মমতাকে মাছি তাড়াতে দেখা যায়। তবে মুখ্যমন্ত্রীর বৈঠকে পরের দিকে মাছিদের খুব একটা দেখা যায়নি। সম্ভবত স্প্রে-র তাড়নায় তখনকার মতো তারা চম্পট দিয়েছিল। তবে সভাঘরে উপস্থিতেরা ততখনে মক্ষিকাকে শায়েস্তা করতে মাঠে নেমে পড়েছিল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here