সোশ্যাল মিডিয়ায় হবে পড়াশুনা। আসছে ‘ফেসবুক ক্যাম্পাস’

সোশ্যাল মিডিয়ায় হবে পড়াশুনা। আসছে ‘ফেসবুক ক্যাম্পাস’

নজরবন্দি ব্যুরোঃ সোশ্যাল মিডিয়ায় হবে পড়াশুনা। আসছে ‘ফেসবুক ক্যাম্পাস’ বিশ্বজুড়ে তাণ্ডব চালাচ্ছে করোনাভাইরাস। ভাইরাস থাবা বসিয়েছে ভারতেও। বর্তমানে ভারতে বিশ্বের মধ্যে সবথেকে বেশি সংক্রমন হচ্ছে প্রতিদিন। আনলক ৪ শুরু হলেও প্রায় সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ। আর শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় শিক্ষা কার্যক্রম চলছে অনলাইনে। এই পরিস্থিতিতে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ শিক্ষার্থীদের জন্য ‘ফেসবুক ক্যাম্পাস’ নামে নতুন একটি সেকশন চালুর ঘোষণা করল।

আরও পড়ুনঃ এবার থেকে গুগলই জানিয়ে দেবে কে ফোন করছে তাঁর যাবতীয় তথ্য।

বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় এবং সর্বাধিক বেশি ব্যবহৃত সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম হল ফেসবুক। ভারতেই ফেসবুক ব্যাবহার করেন প্রায় ৩০ কোটি মানুষ। মাঝেমধ্যেই ফেসবুক নতুন নতুন ফিচার নিয়ে আসে। আর এবার সেই রকমই পড়ুয়াদের কথা মাথায় রেখে ফেসবুক নিয়ে এল ‘ফেসবুক ক্যাম্পাস’।

সোশ্যাল মিডিয়ায় হবে পড়াশুনা। ফেসবুকের ঘোষণা অনুযায়ী, কলেজ ই-মেইল অ্যাড্রেস ও স্নাতকের শিক্ষাবর্ষ ব্যবহার করে সাধারন প্রোফাইলের থেকে ভিন্ন একটি প্রোফাইল তৈরি করতে পারবে কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ছাত্রীরা।

নতুন এ ঘোষণা অনুযায়ী, কলেজ ই-মেইল অ্যাড্রেস ও স্নাতকের শিক্ষাবর্ষ ব্যবহার করে সম্পূর্ণ আলাদা একটি প্রোফাইল তৈরি করতে পারবে কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীরা। এর মাধ্যমে নিজেদের মধ্যে যোগাযোগ ও সংযোগ স্থাপণ করতে পারবে তারা। যেখানে তাদের মেলের প্রোফাইল ফটো এবং কভার ফটোটি ব্যবহৃত হবে।

এছাড়াও ফেসবুক ক্যাম্পাসে থাকছে কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় বিষয়ক আলাদা নিউজফিড। ছাত্র ছাত্রীরা নিজেদের জন্য নিজেরাই একটি করে ইভেন্ট খুলতে পারবেন। যেখানে অন্যকেউ ঢুকতে পারবেনা। পাশাপাশি থাকছে ‘ক্যাম্পাস চ্যাট’ নামে রিয়েল টাইম চ্যাটের সুবিধাও।

ফেসবুক কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, মূলত শিক্ষার্থীদের মধ্যে যোগাযোগ আরও সহজ করার পাশাপাশি ক্যাম্পাস ও শিক্ষার্থীদের বিষয়ে যেকোনো ধরনের তথ্য আদান প্রদানের লক্ষ্যেই মূলত ‘ফেসবুক ক্যাম্পাস’ ফিচারটি চালুর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। ফেসবুক কর্তৃপক্ষ লক্ষ্য করেছে, অনেক সময় শিক্ষার্থীরা তাদের পাবলিক প্রোফাইলে পড়াশোনা বা কলেজের তথ্য সবার সাথে শেয়ার করতে চায়না। আর তাই, এই ধরণের আলাদা সেকশন বা আলাদা প্রোফাইল ব্যবহার করার সুযোগ দেবে ফেসবুক – এমনটাই জানিয়েছেন ক্যাম্পাসের প্রধানমন্ত্রী চার্মাইন হা‌ং।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x