দাদার হাত ধরে ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডের সাথে গাঁটছড়ার পথে লাল-হলুদ

দাদার হাত ধরে ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডের সাথে গাঁটছড়ার পথে লাল-হলুদ
দাদার হাত ধরে ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডের সাথে গাঁটছড়ার পথে লাল-হলুদ

নজরবন্দি ব্যুরোঃ ইস্টবেঙ্গলে স্পনসর হবে কে? এই প্রশ্নই এখন ঘুরপাক খাচ্ছে ময়দানের আকাশে বাতাসে। তবে এই প্রশ্নের উত্তরের জন্য হয়তো আর বেশিদিন অপেক্ষা করতে হবে না। বাংলার লাল হলুদ শিবিরে ত্রাতার ভূমিকায় আসতে চলেছে ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড সৌজন্যে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়।

আরও পড়ুনঃ ইডেনে ম্যচের দিন ঝড় বৃষ্টির সম্ভাবনা, খেলা না হলে কারা যাবে ফাইনালে?

সরকারিভাবে কোনও ঘোষণা না হলেও ইস্টবেঙ্গলের সঙ্গে গাঁটছড়া যে ম্যান ইউ-এর হচ্ছেই, তা দিনের আলোর মতো পরিষ্কার বলেই মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল। সূত্রের খবর, চলতি মাসে একাধিক বার ম্যান ইউ কর্তাদের সঙ্গে ইস্টবেঙ্গল কর্তাদের বৈঠক হয়। এবং সেই বৈঠক ফলপ্রসূ হয়েছে বলেই খবর। আপাতত ইস্টবেঙ্গল সমর্থকরা আশায় বুক বাঁধতেই পারেন।

দাদার হাত ধরে ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডের সাথে গাঁটছড়ার পথে লাল-হলুদ

ইস্টবেঙ্গলের সঙ্গে জুড়ে যাচ্ছে ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডের নাম! আর এই ক্লাবকে ময়দানের ক্লাবের সঙ্গে জুড়ে দেওয়ার কাজটা করেছেন দাদা । ভারতীয় ক্রিকেটের খুব খারাপ সময়ে দলের হাল ধরেছিলেন দাদা তার পরের ঘটনা ইতিহাস । ঠিক তেমনি হিন্দুস্তানের সমস্যায় ভুগতে থাকা লাল-হলুদের সামনে ফের একবার ত্রাতার ভূমিকায় সৌরভ ।

23 12

ইনভেস্টর সমস্যা দূর করতে মহারাজের শরণাপন্ন হয়েছিলেন ইস্টবেঙ্গল কর্তারা। তারপর থেকে সৌরভের মধ্যস্থতাতেই ম্যান ইউ-এর সঙ্গে কথা শুরু হয় ইস্টবেঙ্গলের। একাধিক বার এক টেবিলে বসেছেন দুই দলের কর্তারা।সপ্তসাগর পাড়ের ক্লাব ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড আসছে এই বঙ্গে।

24 12

দাদার হাত ধরে ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডের সাথে গাঁটছড়ার পথে লাল-হলুদ

25 16

হাত ধরছে ইস্টবেঙ্গলের। ভারতীয় ফুটবলে এমন ঐতিহ্যের মেলবন্ধন আর সম্ভবত ঘটেনি স্মরণকালের মধ্যে। শতবর্ষের ইস্টবেঙ্গলের ঐতিহ্যও তো কম নয়। আপাতত তাই আর একটু সময়ের অপেক্ষা। নতুন এই গাঁটছড়া, নতুন এই সম্পর্কের রসায়নে ইস্টবেঙ্গল যে মাঝের সময়ের আঁধার কাটিয়ে আলোর রোশনাই ছড়াবে, সেই আশায় বুক বাঁধছেন দেশবিদেশের অসংখ্য ইস্টবেঙ্গল অনুরাগীরা।