বিরাটের পদত্যাগ নিয়ে গভীর রাতে টুইট দাদার, সিদ্ধান্ত বদলানোর অনুরোধ করেছিল বোর্ড

বিরাটের পদত্যাগ নিয়ে গভীর রাতে টুইট দাদার, সিদ্ধান্ত বদলানোর অনুরোধ করেছিল বোর্ড
বিরাটের পদত্যাগ নিয়ে গভীর রাতে টুইট দাদার, সিদ্ধান্ত বদলানোর অনুরোধ করেছিল বোর্ড

নজরবন্দি ব্যুরোঃ শনিবার ভারতীয় সময় সন্ধে ৬টা ৪৪ মিনিটে বিরাট কোহলী টুইট করে জানিয়ে দেন, টেস্ট ক্রিকেটেও তিনি আর অধিনায়ক থাকছেন না। আর তার ঠিক ৬ ঘণ্টা পর রাত ১২টা ৪৭ এ নিজের প্রতিক্রিয়া জানালেন বোর্ড সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলী।

আরও পড়ুনঃ বেড়েই চলেছে ওমিক্রনের দাপট, বাড়ল দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যাও

ভারতের প্রাক্তন অধিনায়ক এবং বোর্ড প্রেসিডেন্ট সৌরভ গভীর রাতে টুইট করে লেখেন, ‘বিরাটের নেতৃত্বে ভারত সব ধরনের ক্রিকেটেই দ্রুত উন্নতি করেছে। এটা ওর ব্যক্তিগত সিদ্ধান্ত। বোর্ড এই সিদ্ধান্তকে সম্মান করে। ভবিষ্যতে এই দলটাকে আরও উঁচুতে নিয়ে যাওয়ার ব্যাপারে ও গুরুত্বপূর্ণ সদস্য হবে। দারুণ এক ক্রিকেটার। ওয়েল ডান।’

জয় শাহ অবশ্য কোহলীর সিদ্ধান্ত ঘোষণার প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই টুইট করে তাঁর প্রতিক্রিয়া জানান। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের সচিব সন্ধে ৭টা ৭মিনিটে টুইট করে লেখেন, ‘টেস্ট অধিনায়ক হিসাবে দারুণ সময় কাটাল বিরাট কোহলী। ও গোটা দলকে প্রচণ্ড ফিট করে তুলেছে। দেশে এবং বিদেশে দুর্দান্ত খেলেছে দল। অস্ট্রেলিয়া এবং ইংল্যান্ডে টেস্ট জয় অবশ্যই আলাদা আনন্দের।’

বিরাটের পদত্যাগ নিয়ে গভীর রাতে টুইট দাদার
বিরাটের পদত্যাগ নিয়ে গভীর রাতে টুইট দাদার

কিন্তু বিরাটের এই সিদ্ধান্ত কি সহজেই মেনে নিল বোর্ড? না সেটা নয়। বিরাটের এই সিদ্ধান্ত সবার জানার আগেই দলের সাথে থাকা অন্তত ২০ জন জানতেন। জানতেন দুই জাতীয় নির্বাচক দেবাশিস মোহান্তি আর আবে কুরুভিল্লা। বিরাটের সিদ্ধান্ত জানতে পেরে এঁরা বোর্ডকর্তাদের ফোন করেন, এমতাবস্থায় তাঁদের কী করণীয়? বোর্ড (BCCI) বলে, বিরাটের সঙ্গে কথা বলে তাঁকে সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনার অনুরোধ জানাতে। এঁরা কথাও বলেন। কিন্তু বিরাট রাজি হননি।

বিরাটের পদত্যাগ নিয়ে গভীর রাতে টুইট দাদার, সিদ্ধান্ত বদলানোর অনুরোধ করেছিল বোর্ড

বলেন, সকালে উঠে ইদানীং দেখছি আর নিজেকে উদ্দীপ্ত করতে পারছি না। বাহিনীকে চাগানোর সেই জোশটা নিজের মধ্যে পাচ্ছি না। তিনি অনড় দেখে নির্বাচকরা জানিয়ে দেন যে আলোচনা ব্যর্থ। তখন, মানে শুক্রবার বেশি রাতেই বোর্ডকর্তারা বুঝে গিয়েছেন বিরাটের সিদ্ধান্তের ভিত্তি অভিমান হোক কী ধূর্ত হিসাব এখনকার মতো তাঁকে বোঝানো সম্ভব নয়। ক্যাপ্টেনের পদত্যাগপত্র গ্রহণ করা হবে তখনই বোর্ডের অন্দরমহলে সিদ্ধান্ত হয়ে গিয়েছে। মোটামুটি কথা হয়ে যায় এবার থেকে তিন ফরম্যাটেই অধিনায়কত্ব করবেন রোহিত শর্মা ।