চলে গেলেন সিপিএম নেতা শ্যামল চক্রবর্তী।

চলে গেলেন সিপিএম নেতা শ্যামল চক্রবর্তী।

নজরবন্দি ব্যুরো : সিপিএম নেতা শ্যামল চক্রবর্তী প্রয়াত। আজ কলকাতার একটি বেসরকারি হাসপাতালে দুপুরে তাঁর মৃত্যু হয়েছে বলে জানা যাচ্ছে। তিনি করোনায় আক্রান্ত ছিলেন। দুপুর ১টা ৪৫ মিনিট নাগাদ তাঁর মৃত্য়ু হয় বলে হাসপাতাল সূত্রে খবর। গত কয়েকদিন ধরে তিনি হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন।সিটুর রাজ্য সভাপতি ছিলেন শ্যামলবাবু।

আরও পড়ুনঃ দেশে অব্যাহত করোনা ঝড়, আক্রান্তের সংখ্যা ২০ লাখ ছুঁই ছুঁই

 রাজ্যসভার সাংসদও ছিলেন শ্য়ামল চক্রবর্তী। বাম জমানায় রাজ্য়ের পরিবহণমন্ত্রী ছিলেন তিনি। গত ৩০ জুলাই শ্যামলবাবুর কোভিড-১৯ পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ আসে। ৩১ তারিখ তাঁকে বাইপাসের ধারের এই বেসরকারি হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। শ্যামলবাবুর শ্বাসকষ্টের সমস্যা থাকায় সেখানে তাঁকে অক্সিজেন সাপোর্টে রাখা হয়েছিল।

ছিল নিউমোনিয়াও। কিডনির সমস্যার জন্য ডায়লিসিস চলছিল। ৩ তারিখ থেকে ভেন্টিলেশনে রাখা হয় তাঁকে। এ দিন ডায়ালিসিস হওয়ার পর দু’বার হৃদরোগে আক্রান্ত হন। তখনই চিকিত্‍সকেরা জানিয়ে দেন, শ্যামলবাবুর শারীরিক অবস্থা সঙ্কটজনক।দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনে অসংখ্য প্রতিবন্ধকতাকে পরাজিত করেছেন, কিন্তু করোনাকে হারিয়ে আর বাড়ি ফেরা হল না রাজ্যের প্রাক্তনপরিবহণ মন্ত্রীর। মৃত্যুর সময় তাঁর বয়স হয়েছিল ৭৬ বছর।

তাঁর মৃত্যুতে শোকের ছায়া রাজনৈতিক মহলে।হাসপাতালের চিফ এগ্‌জিকিউটিভ অফিসার সুদীপ্ত মিত্র বলেন, ‘শ্যামল চক্রবর্তীর করোনা চিকিত্‍সা চলছিল। সেই সঙ্গে তাঁর নিউমোনিয়া হয়েছিল। দু’টি ফুসফুসই ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল।কিডনির সমস্যা ছিল। ডায়লিসিসের সময় হৃদরোগে আক্রান্ত হন। দুপুর পৌনে ২ টো নাগাদ মারা যান।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x