ওমিক্রন মোটেই প্রাকৃতিক ভ্যাকসিন নয়, এই প্রজাতিও ভয়ঙ্কর! বলছেন ভাইরোলজিস্ট।

ওমিক্রন মোটেই প্রাকৃতিক ভ্যাকসিন নয়, এই প্রজাতিও ভয়ঙ্কর! বলছেন ভাইরোলজিস্ট।

নজরবন্দি ব্যুরোঃ বিশ্বজুড়ে হুহু করে বাড়ছে ওমিক্রন আক্রান্তের সংখ্যা। করোনাভাইরাসের এই ভেরিয়েন্টের হাত ধরেই তৃতীয় ঢেউ ঢুকে পড়েছে ভারতেও। পশ্চিমবঙ্গে ঘোষণা করা হয়েছে একাধিক সতর্কবানী। জারি করা হয়েছে নাইট কার্ফু সহ একগুচ্ছ বিধি নিষেধ। এই যখন পরিস্থিতি তখনই আশার কথা শুনিয়েছিলেন চিকিৎসকরা। জানা গিয়েছিল ওমিক্রন আসলে আশীর্বাদ! কিন্তু পরিবর্তিত পরিস্থিতি বলছে তা নয় মোটেই!

আরও পড়ুনঃ দ্বিতীয় ঢেউ ডেল্টার মতই ভয়াবহ তৃতীয় ঢেউ, ভারতে লাখো মৃত্যুর আশঙ্কা রাষ্ট্রসঙ্ঘের।

কিছুদিন আগেই করোনার দ্বিতীয় ঢেউ নাড়িয়ে দিয়েছিল বিশ্বকে। কার্যত মড়ক দেখা দিয়েছিল বিশ্ব জুড়ে। লাখো মানুষের প্রান কেড়েছিল করোনা ভাইরাসের ডেল্টা ভেরিয়েন্ট। তাই সাধারণের মনে প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছিল ওমিক্রন কি ডেল্টার মতই ভয়ঙ্কর? সাধারণ মানুষের মধ্য়ে যখন এই প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছে তখন আশার বাণী শুনিয়েছিলেন ইজরায়েলের চিকিৎসক আফসাইন এমরানি।

তিনি বলেছিলেন, “ওমিক্রন (Omicron) আসলে একটি ভ্যাকসিন। এই ভ্যাকসিন কোনও সংস্থা বানাতে পারেনি। অক্সিজেন লাগে না, সঙ্কট নেই, হাসপাতালের প্রয়োজন কম। এটা তৈরি করবে গণ রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা। ডেল্টার জায়গা নিয়ে নেবে ওমিক্রন (Omicron)। ৮-১২ সপ্তাহের মধ্যে গোটা বিশ্বে টিকাকরণ হয়ে যাবে। আতঙ্কিত হওয়ার কোনও কারণ নেই। প্রকৃতির কাছে কৃতজ্ঞ থাকা উচিত। এটা আসলে একটা আশীর্বাদ”।

কিন্তু তাঁর সেই দাবি উড়িয়ে দিলেন দেশের খ্যাতনামা ভাইরোলজিস্ট এবং শিক্ষাবিদ চিকিৎসক শাহিদ জামিল। বর্তমানে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সেন্টার ফর ইসলামিক স্টাডিজের রিসার্চ ফেলো (Oxford Centre for Islamic Studies and Research Fellow, University of Oxford) তিনি। সেই শাহিদ জামিল বলছেন, ওমিক্রন (Omicron) কোভিডের এই নতুন ভ্যারিয়েন্টটিকে নিয়ে কিন্তু নানা রকম কথা শোনা যাচ্ছে। অনেকেই বলছেন তুলনায় ওমিক্রনের সংক্রামক ক্ষমতা হালকা, তবে ডেল্টায় তুলনায় দ্রুত ছড়াচ্ছে। কিন্তু সংক্রমণ হালকা হলেও কেন এখনও এত মানুষকে হাসপাতালে ভর্তি হতে হচ্ছে?

ওমিক্রন মোটেই প্রাকৃতিক ভ্যাকসিন নয়, এই প্রজাতিও ভয়ঙ্কর! বলছেন ভাইরোলজিস্ট।

ওমিক্রন মোটেই প্রাকৃতিক ভ্যাকসিন নয়, এই প্রজাতিও ভয়ঙ্কর! বলছেন ভাইরোলজিস্ট।
ওমিক্রন মোটেই প্রাকৃতিক ভ্যাকসিন নয়, এই প্রজাতিও ভয়ঙ্কর! বলছেন ভাইরোলজিস্ট।

অনেকেই বলছেন ওমিক্রন প্রাকৃতিক ভ্যাকসিনের কাজ করে। এই ধারণা কিন্তু একেবারেই ভুল। বরং এই তথ্য দিয়ে আমরা মানুষকে উৎসাহিত করছি যাতে তিনি সংক্রমণের কবলে পড়েন। ওমিক্রন হলে ভবিষ্যতে সুরক্ষিত থাকবেন, এসব ভাবনা মাথাতেও আনবেন না। কারণ একটা ভাইরাসের পরবর্তী প্রতিক্রিয়া কী রকম হতে পারে সে বিষয়ে এখনই কিছু জানা আমাদের পক্ষে সম্ভব নয়।