করোনাকালে ‘আচ্ছে দিন’, বৃদ্ধি পেল কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারীদের মহার্ঘ ভাতা।

করোনাকালে 'আচ্ছে দিন', বৃদ্ধি পেল কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারীদের মহার্ঘ ভাতা।
করোনাকালে 'আচ্ছে দিন', বৃদ্ধি পেল কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারীদের মহার্ঘ ভাতা।

নজরবন্দি ব্যুরোঃ করোনাকালে ‘আচ্ছে দিন’, বৃদ্ধি পেল কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারীদের মহার্ঘ ভাতা। করোনায় জেরবার গোটা দেশ। মহামারীর বিরুদ্ধে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে লড়াই চালাচ্ছে দেশের চিকিৎসামহল থেকে সাধারণ মানুষ। এমন অবস্থায় কিছুটা হলেও স্বস্তি পেলেন দেশের কয়েক কোটি কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মী। একধাক্কায় অনেকটা বাড়িয়ে দেওয়া হল তাদের মহার্ঘ ভাতা। করোনার কঠিন সময়ে কেন্দ্রের এই ঘোষণায় যথেষ্ট খুশি কর্মীমহল।

আরও পড়ুনঃ ভ্যাকসিন নিয়ে সুখবর, আগস্ট থেকেই ভারতে শুরু রাশিয়ার স্পুটনিক ৫ উৎপাদন।

কঠিন করোনা পরিস্থিতিতে এই অর্ধে ডিএ বা মহার্ঘ ভাতা বৃদ্ধি নিয়ে কিছুটা চিন্তিত ছিল দেশের সরকারি কর্মীমহল। তবে কেন্দ্র কঠিন পরিস্থিতিতেও ডিএ বাড়িয়ে দেওয়ায় তারা এখন নিশ্চিন্ত বোধ করছে। এদিকে করোনা পরিস্থিতিতে দেশজুড়ে বেশিরভাগ রাজ্যে চলছে লকডাউন। যার ভালোরকম প্রভাব পড়েছে দেশের অর্থনীতিতে। এমন অবস্থায় ডিএ বাড়ানোর যৌক্তিকতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন অনেকেই। তবে শুক্রবার কেন্দ্রীয় শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রকের এই ঘোষণা অনুযায়ী প্রায় দেড় কোটি কেন্দ্রীয় সরকারের কর্মীরা এর ফলে উপকৃত হবেন বলে জানিয়েছে কেন্দ্র।

নয়া স্কেল অনুযায়ী প্রতি মাসের হিসেব অনুযায়ী দ্বিগুণ বাড়ল পরিবর্তনশীল মহার্ঘ ভাতা ১০৫ টাকা থেকে বেড়ে ২১০ টাকা হল। এই বর্ধিত ডিএ আগামী ১ এপ্রিল থেকে কার্যকরী হবে। এর ফলে কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারীদের ন্যূনতম মজুরিও বাড়ছে। রেল, খনি, তৈলক্ষেত্র, বিল্ডিং মেরামত, বন্দরসহ কেন্দ্রের অধীনস্ত সব প্রতিষ্ঠানের স্থায়ী সহ, অস্থায়ী ও ঠিকাকর্মীদের ক্ষেত্রেও এই নিয়ম প্রযোজ্য। যার ফলে ন্যূনতম মহার্ঘভাতা বেড়ে দাঁড়াল ৪৩১ টাকা।

করোনাকালে ‘আচ্ছে দিন’, বৃদ্ধি পেল কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারীদের মহার্ঘ ভাতা। সর্ব্বোচ্চ দৈনিক মহার্ঘভাতা হল ৮৫৩ টাকা। এব্যাপারে কেন্দ্রীয় শ্রমমন্ত্রী সন্তোষ গাংওয়ার জানিয়েছেন “নয়া এই পরিবর্তনশীল মহার্ঘভাতার নিয়মের ফলে দেশজুড়ে প্রায় ১.৫০ কোটি কর্মচারী উপকৃত হবেন। বিশেষত করোনার সময় এই বৃদ্ধি তাদের সাহায্য করবে।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here