কাল পর্যন্ত বাংলায় মেয়াদ লকডাউনের, তার আগেই নবান্নতে এল কেন্দ্রের সতর্কবার্তা

কাল পর্যন্ত বাংলায় মেয়াদ লকডাউনের, তার আগেই নবান্নতে এল কেন্দ্রের সতর্কবার্তা
কাল পর্যন্ত বাংলায় মেয়াদ লকডাউনের, তার আগেই নবান্নতে এল কেন্দ্রের সতর্কবার্তা

নজরবন্দি ব্যুরোঃ কাল পর্যন্ত বাংলায় মেয়াদ লকডাউনের, তার পর রাজ্য বিধি নিষেধ শিথিল করবে কিনা সেই নিয়ে আজই বৈঠক বসার কথা নবান্নতে। করোনার প্রকোপ কিছুটা কমায় আগের বৈঠক থেকেই অনেক ক্ষেত্রেই বাঁধন আলগা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী।

আরও পড়ুনঃ ২০২০-র পর এই প্রথম, সামনা-সামনি বৈঠকে বসলো মোদি-ক্যাবিনেট

গণপরিবহন হিসেবে রাস্তায় নেমেছে সরকারি বেসরকারি বাস। কাল পর্যন্ত বাংলায় মেয়াদ লকডাউনের, আজ নবান্ন বৈঠকে মুদ্দা উঠবে আগামী কালের মেয়াদ শেষ হলে স্বাভাবিক ভাবে ছাড় দেওয়া হবে কিনা লোকাল ট্রেন আর মেট্রোতে। যাতায়াতের অসুবিধার কারণে যাত্রীরা লোকাল ট্রেন চালানোর দাবীতে বারবার বিক্ষোভ দেখিয়েছেন রাজ্য জুড়ে।

কাল পর্যন্ত বাংলায় মেয়াদ লকডাউনের, তবে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগেই সতর্ক বার্তা সহ কেন্দ্রের চিঠি এসে পৌঁছেছে নবান্নতে। দেশের পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতে শুরু করলেও উদ্বেগ বাড়াচ্ছে উত্তর-পুর্বের রাজ্যগুলি। মঙ্গলবার সেই সব রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন খোদ দেশের প্রধানমন্ত্রী। কোন উপায়ে রুখে দেওয়া যাবে সংক্রমণ আলোচনা হয়েছে সেসব নিয়ে।

কাল পর্যন্ত বাংলায় মেয়াদ লকডাউনের, লোকাল ট্রেন নিয়ে আজ ভাববে রাজ্য সরকার। 

কাল পর্যন্ত বাংলায় মেয়াদ লকডাউনের, তার আগেই নবান্নতে এল কেন্দ্রের সতর্কবার্তা
কাল পর্যন্ত বাংলায় মেয়াদ লকডাউনের, তার আগেই নবান্নতে এল কেন্দ্রের সতর্কবার্তা

কাল পর্যন্ত বাংলায় মেয়াদ লকডাউনের, পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণের আগেই বার্তা এলো দিল্লি থেকে।  আজ কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র সচিব অজয় ভাল্লা সকল রাজ্যের মুখ্য সচিবদের চিঠি দিয়ে করোনা মোকাবিলা নিয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে সতর্ক করেছেন। চিঠিতে তিনি জানিয়েছেন বহু রাজ্যেই একাধিক জায়গায় ভিড় বাড়ছে। মানা হচ্ছেনা কোভিড বিধি, সামাজিক দূরত্ব। করোনা কালের পরোয়া না করেই জমায়েত হচ্ছে পাহাড় থেকে সমুদ্র তীরে।

তাতে সংক্রমণ আরও বাড়বে বলেই মতে প্রকাশ করেছিলেন বিষেশজ্ঞরা, আজ সেকথাই চিঠিতে জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বরাস্ট্র সচিব। সঙ্গে সমাধান সূত্র হিসেবে তিনি লিখেছেন, পরিস্থিতি মোকাবিলায় আরও কঠোর হোক রাজ্য সরকার। প্রয়োজন অনুযায়ী রাজ্যে চিহ্নিত করা হোক কন্টেনমেন্ট জোন, তৈরি হোক হটস্পট এরিয়া। দরকারে আইনি ব্যবস্থা নিক রাজ্যগুলি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here