ভোট পরবর্তী হিংসা মামলা, অনুব্রতর গড়ে তৃণমূলের পার্টি অফিসে হানা CBI-এর

ভোট পরবর্তী হিংসা মামলা, অনুব্রতর গড়ে তৃণমূলের পার্টি অফিসে হানা CBI-এর
ভোট পরবর্তী হিংসা মামলা, অনুব্রতর গড়ে তৃণমূলের পার্টি অফিসে হানা CBI-এর

নজরবন্দি ব্যুরোঃ ভোট পরবর্তী হিংসা মামলায় অতি সক্রিয় কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। গত মাসেই আদালতের রায়ে খুন এবং ধর্ষণের মামলা গুলির তদন্তভার গিয়েছে সিবিআই-এর হাতে। একের পর এক ঘটনার সরেজমিনে তদন্ত করছেন আধিকারিকরা। ভোট পরবর্তী হিংসার তদন্তে মোট ৮৪ জন তদন্তকারী অফিসার বা আইও-র মধ্যে ইন্সপেক্টর, ডিএসপি পদমর্যাদার অফিসার রয়েছেন। এছাড়া ২৫ জন কর্তাও রয়েছেন এই দলে।

আরও পড়ুনঃ পুজোর বাদ্যি বেজেছে, উৎসবের মরশুমে খুলে যাচ্ছে চিড়িয়াখানাও

বীরভূমের খুনের ঘটনায় গতকাল আরও এক তৃণমূল কর্মী গ্রেপ্তারের পর এখনো পর্যন্ত CBI-এর তালিকায় রাজ্যের মোট ধৃতের সংখ্যা ১৯ জন। ভোটের ফল প্রকাশের দিন খুন হয়েছিলেন ইলামবাজারের বাসিন্দা গৌরব সরকার। পরিবারের অভিযোগ ছিল ভোটের ফলাফলের দিন, অর্থাৎ ২রা মে বাড়ি থেকে টেনে নিয়ে এসে খুন করা হয়েছিল গৌরব বাবুকে। ইতিমধ্যে সেই ঘটনায় গ্রেপ্তার হয়েছেন দু’জন। দিন কয়েক আগেই গ্রেপ্তার হয়েছিলেন একজন।

ভোট পরবর্তী হিংসা মামলা, তদন্তে সরেজমিনে ঘুরছেন সিবিআই আধিকারিকরা। 

তার পরেই গতকাল গৌরব সরকারের বাড়িতে যায় কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার টিম। তাঁর খুনের মামলায় গতকালই হুগলী থেকে গ্রেপ্তার হয়েছেন ইলামবাজারের তৃণমূল কর্মী দিলীপ মৃধা। তার পরেই আজ সোজা ইলামবাজারের তৃণমূল পার্টি অফিসে হানা দেন আধিকারিকরা।  রাজ্যে এই প্রথম ভোট পরবর্তী হিংসা মামলার তদন্তে শাসক দলের কোন পার্টি অফিসে গেল সিবিআই। সূত্রের খবর তথ্য জানতে চেয়ে নোটিস দেওয়া হয়েছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার পক্ষ থেকে।

ঘটনা প্রসঙ্গে  তৃণমূল কংগ্রেস কার্যালয়ের সম্পাদক বাবর আলি জানিয়েছেন সিবিআইয়ের ৪জন প্রতিনিধি এসে প্রায় কথা বলেন আধঘন্টা। কিছু ফোন নম্বর ও ঠিকানা চেয়েছেন তাঁরা, সঙ্গে ২০১৯ এর লোকসভা নির্বাচন এবং ২০২১ এর বিধানসভা নির্বাচনে গোপালনগর গ্রামে বুথ কমিটির সদস্যদের নাম ঠিকানা ও ফোন নম্বর-সহ ওই গ্রামের পঞ্চায়েত প্রধানের নাম ও বিস্তারিত তথ্য জানতে চাওয়া হয়েছে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here