কয়লা পাচার কাণ্ডে সিবিআই এর জেরার মুখে ‘ডিরেক্টর অব সিকিউরিটি’ জ্ঞানবন্ত সিং।

কয়লা পাচার কাণ্ডে সিবিআই এর জেরার মুখে 'ডিরেক্টর অব সিকিউরিটি' জ্ঞানবন্ত সিং।
কয়লা পাচার কাণ্ডে সিবিআই এর জেরার মুখে 'ডিরেক্টর অব সিকিউরিটি' জ্ঞানবন্ত সিং।

নজরবন্দি ব্যুরোঃ কয়লা পাচার কাণ্ডে সিবিআই এর জেরার মুখে ‘ডিরেক্টর অব সিকিউরিটি’ জ্ঞানবন্ত সিং। রাজ্যে কয়লা ও গরু পাচারকাণ্ডের তদন্তে উঠেপড়ে নেমেছে সিবিআই ও ইডির মত কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থাগুলি। মূল চক্রীদের হদিশ পেয়ে তাঁদের নাগালে এনে দ্রুতই এর কিনারা করতে চান কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার আধিকারিকরা। ইতিমধ্যেই অন্যতম মূল পাণ্ডা ব্যবসায়ী অনুপ মাজি ওরফে লালাকে একাধিকবার জেরা করেছে সিবিআই।

আরও পড়ুনঃ ৫ কেন্দ্রে নির্বাচন মিটতেই ঝোড়ো ইনিংস জ্বালানী তেলের, সেঞ্চুরির পথে পেট্রোল।

যদিও শীর্ষ আদালতের রক্ষাকবচ থাকায় এখনও তাঁকে গ্রেফতার করা যায়নি। আরেক চক্রী বিনয় মিশ্র এখনও অধরা। তাঁর ভাই বিকাশ মিশ্রকে গ্রেপ্তারের পর হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ পর্ব চালানো হচ্ছে। তবে এই ঘটনার তদন্তে একাধিক উচ্চপদের পুলিশ আধিকারিকদের নাম উথে আসার পর তাদেরও জিজ্ঞাসাবাদ করে বিভিন্ন তথ্য পেতে চাইছেন গোয়েন্দারা। এদিকে এই ঘটনায় কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা বারবার রাজনৈতিক নেতাদের ছত্রচ্ছায়ায় থেকে পাচার চালানোর কথাও তুলেছে। কয়লা কাণ্ডে এর আগে আসানসোল কমিশনারেটের কর্তা, চন্দননগর কমিশনারেটের এক অফিসার-সহ চার জনকে তলব করেছিল সিবিআই।

তা ছাড়া বাঁকুড়া থানার আইসি অশোক মিশ্রকেও গ্রেফতার করা হয়েছে। যিনি বিনয় মিশ্রের আত্মীয়। এছারা এই ঘটনায় সিবিআই সর্বশেষ তলব করেছিল বাঁকুড়ার পুলিশ সুপার কোটেশ্বর রাওকে। আর আজ সিবিআই এর দপ্তর নিজাম প্যালেসে ডাক পান রাজ্যের প্রাক্তন এডিজি আইন-শৃঙ্খলা তথা বর্তমান ডিরেক্টর অব সিকিউরিটি জ্ঞানবন্ত সিং। এদিন সকাল ৬ টা নাগাদ নিজাম প্যালেসে এসে সারে ৮ টা নাগাদ বেরিয়ে যান তিনি। মুখ্যমন্ত্রীর সুরক্ষার দায়িত্বে থাকায় তিনি সকালেই সময় দিতে পারবেন বলে আগেই জানিয়েছিলেন। সেই মত প্রশ্ন তৈরি করে রেখেছিলেন সিবিআই আধিকারিকরা।  ফলে দু’ঘন্টা জিজ্ঞাসাবাদের পর তিনি বেরিয়ে যান। সম্প্রতি কয়লা পাচারে একাধিক পুলিশ আধিকারিকদের জিজ্ঞাসাবাদে তাঁর নাম উঠে আসে বলে সূত্রের দাবি।

কয়লা পাচার কাণ্ডে সিবিআই এর জেরার মুখে ‘ডিরেক্টর অব সিকিউরিটি’ জ্ঞানবন্ত সিং। বিষয়টি স্পষ্ট করতে তাঁকে ডেকে পাঠিয়েছে সিবিআই। কিছু নথিপত্রও জমা দিয়েছেন জ্ঞানবন্ত সিং বলে খবর। এখন দেখার তাঁকে জেরার পর এই ঘটনায় সমাধানসূত্র খুঁজে পায় কিনা কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থাটি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here