নেতাদের জামিন নিয়ে আদালতের রায়কে চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে যাচ্ছে CBI

নেতাদের জামিন নিয়ে আদালতের রায়কে চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে যাচ্ছে CBI
নেতাদের জামিন নিয়ে আদালতের রায়কে চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে যাচ্ছে CBI

নজরবন্দি ব্যুরো: সিবিআই সোমবার সকালে রাজ্যের ২ মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম, সুব্রত মুখোপাধ্যায় এবং দুই প্রাক্তন মন্ত্রী মদন মিত্র ও শোভন চট্টোপাধ্যায়কে গ্রেফতার করে। এরপর করোনা পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে ভার্চুয়াল মাধ্যমে CBI-এর বিশেষ আদালতে তাঁদের ভার্চুয়াল শুনানি শুরু হয়।

আরও পড়ুনঃ শোভনের গ্রেফতারি নিয়ে মুখ খুলে বিজেপিকে করোনার সাথে তুলনা বৈশাখীর।

আদালতে তাঁদের ১৪ দিনের জেল হেফাজত চেয়ে আবেদন জানায়। কারণ হিসেবে দেখানো হয়েছে, এই চারজন অত্যন্ত প্রভাবশালী। ফলে সাক্ষ্যপ্রমান লুঠ হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। কিন্তু, তাঁদের আবেদন খারিজ করে দেন বিচারক।

এই চার রাজনীতিবিদ প্রায় আড়াই ঘণ্টা রায়দান স্থগিত রাখার পর শেষ পর্যন্ত জামিন পান।এদিকে, অভিযুক্তদের পক্ষে আইনজীবীরা জানান, চার বছর আগের মামলায় হেফাজতে নিয়ে কী জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে? CBI-এর যুক্তিতে অনেক ধোঁয়াশা রয়েছে বলেও জানান তৃণমূলের আইনজীবী কল্যান বন্দ্যোপাধ্যায়।

বিচারক অনুপম মুখোপাধ্যায় বিশেষ সিবিআই আদালত ভারচুয়াল শুনানির পর ফিরহাদ হাকিম, সুব্রত মুখোপাধ্যায়,মদন মিত্র এবং শোভন চট্টোপাধ্যাকে অন্তবর্তী জামিন দেন। ৫০ হাজার টাকার ব্যক্তিগত বন্ডের বিনিময়ে জামিন পেয়েছেন তাঁরা।

তবে নগরদায়রা আদালতের এই রায়কে চ্যালেঞ্জ করে হাই কোর্টে যাচ্ছেন কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার আইনজীবীরা।সরকারের তরফের আইনজীবী কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, “নিয়মবিরুদ্ধভাবে রাজ্যপালের অনুমতি নিয়ে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। সুপ্রিম কোর্ট আগেই জানিয়েছিল কোভিড পরিস্থিতি অকারণে গ্রেপ্তার করা চলবে না। অকারণে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। আদালতে সুবিচার মিলল।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here