চার নেতার জামিন রুখতে সুপ্রিম কোর্টে ক্যাভিয়েট দাখিল করার কথা ভাবছে সিবিআই।

এবার পোশাক বিধির আওতায় এল কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সিবিআই দপ্তর।
এবার পোশাক বিধির আওতায় এল কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সিবিআই দপ্তর।

নজরবন্দি ব্যুরোঃ গতকাল তৃণমূলের চার হেভিওয়েট নেতাকে গ্রেফতার করেছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। ধৃত চার নেতার জামিন আটকাতে সবরকম প্রস্তুতি নিচ্ছে সিবিআই। জামিন আটকাতে শীর্ষ আদালতে ক্যাভিয়েট দাখিল করার কথা ভাবছে কেন্দ্রীয় সংস্থা৷ প্রসঙ্গত, সোমবার সকালে নারদা মামলায় শাসক দলের চারজন হেভিওয়েটকে হেফাজতে নেয় সিবিআই। রাজ্যের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম, মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়, বিধায়ক মদন মিত্র এবং প্রাক্তন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়কে গ্রেফতার করে নিয়ে যাওয়া হয় নিজাম প্যালেসে৷

আরও পড়ুনঃ করোনার প্রভাব দেশের অর্থনীতিতে, চলতি মাসে বেকারত্বের হার হতে পারে সর্বোচ্চ, দাবি অর্থনীতিবিদদের

এর পরই গ্রেফতারির বিরুদ্ধে সিবিআই অফিসের বাইরে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে তৃণমূল কর্মীরা। গতকাল সন্ধেবেলা সিবিআই-এর বিশেষ আদালত থেকে জামিন পান ওই চার নেতা। কিন্তু সিবিআই আধিকারিকদের আবেদনের ওপর ভিত্তি করে জামিনের নির্দেশে স্থগিতাদেশ জারি করে কলকাতা হাইকোর্ট৷ বুধবার পর্যন্ত চার নেতার জামিন স্থগিত করা হয়।

আগামীকাল কলকাতা হাইকোর্ট ধৃত চার নেতার জামিনে মঞ্জুরি দিলে সুপ্রিম কোর্টে যাওয়া হবে বলে জানিয়েছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে, শারীরিক অসুস্থতার কারণ দেখি জামিন পাওয়ার চেষ্টা করলে তাদের রিরুদ্ধে আরও প্রভাবশালী তত্ত্ব তুলে ধরা হবে। অর্থাৎ জামিন পেয়ে তারা তত্ব নষ্ট করতে পারেন এমন সম্ভাবনার কথা জানানো হবে আদালতকে।

অন্যদিকে কলকাতা হাইকোর্ট থেকে জামিন না পেলে ধৃত নেতারা সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হতে পারেন। সেই কারণেই আগেভাগে ক্যাভিয়েট দাখিল করতে চাইছে সিবিআই। তদন্তকারী সংস্থা সুত্রে খবর, নারদা কান্ডে এখনও পর্যন্ত যাদের নাম চার্জশিটে রয়েছে তাঁদের ভয়েস স্যাম্পেল টেস্ট করা হয়েছে এবং তা ম্যাচও করেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here