হোমের ১ তলা নির্মানে খরচ ৩.৪১ কোটি, ‘কাটমানি’ প্রসঙ্গ তুলে রাজ্যকে তুলোধনা হাই কোর্টের!

হোমের ১ তলা নির্মানে খরচ ৩.৪১ কোটি, ‘কাটমানি’ প্রসঙ্গ তুলে রাজ্যকে তুলোধনা হাই কোর্টের!
হোমের ১ তলা নির্মানে খরচ ৩.৪১ কোটি, ‘কাটমানি’ প্রসঙ্গ তুলে রাজ্যকে তুলোধনা হাই কোর্টের!

নজরবন্দি ব্যুরোঃ হোমের ১ তলা নির্মানে খরচ ৩.৪১ কোটি, ‘কাটমানি’ প্রসঙ্গ তুলে রাজ্যকে কার্যত তুলোধনা করল হাইকোর্ট। বিভিন্ন রাজ্যের হোমগুলির কেমন অবস্থায় রয়েছে, তা সরেজমিনে খতিয়ে দেখার জন্যে দেশের সমস্ত হাই কোর্টকে নির্দেশ দিয়েছিল সুপ্রিম কোর্ট। সেই নির্দেশ মেনে দেশের অন্যান্য হাই কোর্ট গুলোর মত কলকাতা হাই কোর্ট এ রাজ্যের হোমগুলির তথ্য জানতে চেয়েছিল রাজ্য সরকারের কাছে। বৃহস্পতিবার সেই রিপোর্ট আদালতে জমা দেয় নবান্ন।

আরও পড়ুনঃ ‘এক ব্যক্তি এক পদ’ খুব শীঘ্রই নয়া মুখদের সামনে আনতে চলেছে তৃণমূল কংগ্রেস।

সেই রিপোর্ট দেখেই চক্ষু চড়কগাছ কলকাতা হাই কোর্টের। রাজ্যের দেওয়া রিপোর্টে ব্যাপক অসন্তোষ প্রকাশ করেন ডিভিশন বেঞ্চের দুই বিচারপতি হরিশ টন্ডন এবং সৌমেন সেন। রাজ্যের রিপোর্ট দেখেই হাই কোর্ট জানতে পেরেছে একটি হোমের ১ তলা নির্মানে খরচ ৩.৪১ কোটি টাকা দেখানো হয়েছে। যা দেখে রাজ্য সরকারের কড়া সমালোচনা কররে কলকাতা হাই কোর্ট।

সমালচনার পাশাপাশি উদ্বেগ ঝরে পড়ে বিচারপতিদের গলায়। তাঁদের মুখে উঠে আসে কাটমানি প্রসঙ্গ। বিচারপতিরা বলেন, “একটি হোমের ১ তলা নির্মানে খরচ ৩.৪১ কোটি! তারপরেও হোমের পরিস্থিতি এমন কেন?” পাশাপাশি তাঁদের প্রশ্ন, হোমগুলি নির্মাণের জন্য কী ভাবে টেন্ডার ডাকা হয়? এখন পর্যন্ত কতগুলি টেন্ডার ডাকা হয়েছে?  প্রশ্ন তুলে বিচারপতিরা বিস্তারিত রিপোর্ট চান রাজ্য সরকারের কাছে। বিচারপতি সৌমেন সেন প্রশ্ন তোলেন, হোম নির্মাণে ‘কাটমানি’ চক্র কাজ করছে না তো?

হোমের ১ তলা নির্মানে খরচ ৩.৪১ কোটি, ‘কাটমানি’ প্রসঙ্গে উদ্বেগ রাজ্য রাজনীতিতে

হাই কোর্টে এভাবে কাটমানি প্রসঙ্গ ওঠা নজিরবিহীন। কারন ইতিমধ্যেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তৃতীয় বার ক্ষমতায় আসার পর কাটমানির যাতে অভিযোগ না ওঠে এবং সরকারি প্রকল্পের ১০০ শতাংশ সুফল যাতে সরাসরি পৌঁছায় বাংলার জনগনের কাছে তাঁর জন্য পর্যাপ্ত ব্যাবস্থা নিয়েছেন দলীয় এবং প্রশাসনিক স্তরে। তারপরেও হাইকোর্টের পর্যবেক্ষনে কাটমানি প্রসঙ্গ উঠে আসা অত্যন্ত উদ্বেগের বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল। উল্লেখ্য, এদিন হোমে থাকা আবাসিকদের জন্যে টিকাকরনের কথাও বলেন বিচারপতিরা। হাই কোর্ট রাজ্যকে নির্দেশ দিয়েছে, বয়স অনুযায়ী দ্রুত হোমের বাসিন্দাদের টিকাকরণের ব্যবস্থা করতে হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here