ভবানীপুরে আটে আট মমতার, দেখুন কোন ওয়ার্ড কত লিড দিল মুখ্যমন্ত্রীকে।

ভবানীপুরে আটে আট মমতার, দেখুন কোন ওয়ার্ড কত লিড দিল মুখ্যমন্ত্রীকে।
ভবানীপুরে আটে আট মমতার, দেখুন কোন ওয়ার্ড কত লিড দিল মুখ্যমন্ত্রীকে।

নজরবন্দি ব্যুরোঃ ভবানীপুরে আটে আট মমতার, রেকর্ড গড়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। রেকর্ড গড়ে অভিনন্দন জানিয়েছেন ভোটারদের। কয়েকমাস আগেই ভবানীপুরের ৮টি ওয়ার্ডের মধ্যে ২ টি তে লিড নিয়েছিলেন বিজেপি প্রার্থী রুদ্রনীল ঘোষ। তৃণমূলের শোভনদেব চট্টোপাধ্যায় জয়ী হন ২৮ হাজার ভোটে, লিড নেন ছটি ওয়ার্ড থেকে। যার মধ্যে শুধু ৭৭ নম্বর ওয়ার্ড তাঁকে লিড দিয়েছিল ২১ হাজার ৩৭৯ ভোট।

আরও পড়ুনঃ চার আসনে প্রার্থী ঘোষণা ‘মোদীশাহসুরমর্দিনী’ মমতার, দেবীপক্ষের সূচনা ভবানীপুরে!

কিন্তু এবারের প্রার্থী ছিলেন খোদ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ভবানীপুর কে তিনি বড় বোনের মর্যাদা দিয়েছিলেন ২০২১ বিধানসভা নির্বাচন ঘোষণা হওয়ার পর। মেজ বোন নন্দীগ্রাম হতাশ করলেও হতাশ করেনি বড় বোন। বিরাট জয়ের সাথে ভবানীপুরে আটে আট মমতার! সার্বিকভাবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দী প্রিয়াঙ্কা টিবরিওয়াল কে পরাজিত করেছেন ৫৮ হাজার ৮৩২ ভোটে।

এদিন মমতা বলেন, “এটা একটা চ্যালেঞ্জ ছিল। কোনও ওয়ার্ডের মানুষ আমাদের হারাননি। ২০১৬ সালেও আমি একটি দুটি ওয়ার্ডে ভোট কম পেয়েছিলাম। এবার একটি ওয়ার্ডেও ভোট কম পাইনি।” কিন্তু কোন ওয়ার্ড কত লিড দিল মুখ্যমন্ত্রী কে।

সূত্রের খবর, ৬৩ নম্বর ওয়ার্ড থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় লিড পেয়েছেন ২,৩৬৬ ভোট। ৭০ নম্বর ওয়ার্ড থেকে লিড পেয়েছেন ১,৫৫৬ ভোট। ৭১ নম্বর ওয়ার্ডে মমতা লিড নিয়েছেন ৬,০৯৯ ভোট। ৭২, ও ৭৩ নম্বর ওয়ার্ড থেকে যথাক্রমে ৩৫০০ এবং ৫৮৮৯ ভোট। ৭৪ নম্বর ওয়ার্ড থেকে মুখ্যমন্ত্রী লিড পেয়েছে ৪,৯৭৯ ভোটের। ৮২ নম্বরে লিড ১২,০৬৭ এবং সর্বশেষ ৭৭ নম্বর ওয়ার্ড থেকে ২১,৬৭৯ ভোটের লিড।

ভবানীপুরে আটে আট মমতার

ভবানীপুরে আটে আট মমতার
ভবানীপুরে আটে আট মমতার

এদিন মমতা বন্দোপাধ্যায়ের জয়ের পর মেরুকরনের রাজনীতি ধাক্কা খেয়েছে রাজ্যে। কারন হিন্দু অধ্যুষিত এলাকাতেও বেশি ভোট পাননি বিজেপি প্রার্থী। ক্ষোভপ্রকাশও করেছেন তিনি। এদিকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, “ভবানীপুর জায়গাটা ছোট, কিন্তু বৃত্তটা অনেক বড়। ভবানীপুরের মানুষ আজ দেখিয়ে দিল। সারা বাংলা আজ ভবানীপুরের দিকে তাকিয়ে ছিল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here