কঠিন লড়াইয়ের পুরস্কার, ভাতা বাড়ল রাজ্যের পুরসভার স্বাস্থ্যকর্মীদের

কঠিন লড়াইয়ের পুরস্কার, ভাতা বাড়ল রাজ্যের পুরসভার স্বাস্থ্যকর্মীদের

নজরবন্দি ব্যুরো : কঠিন লড়াইয়ের পুরস্কার, ভাতা বাড়ল রাজ্যের পুরসভার স্বাস্থ্যকর্মীদের। আগেই কথা দিয়েছিল রাজ্য। তাই নতুন বছরেই করোনাকালে কঠিন লড়াইয়ের পুরস্কার হিসাবে ভাতা বাড়ল রাজ্যের পুরসভার স্বাস্থ্যকর্মীদের। করোনা মোকাবিলায় লাগাতার ভাল কাজের পুরস্কার হিসেবে পুরসভার অস্থায়ী স্বাস্থ্যকর্মীদের ভাতা বাড়াল রাজ্যের পুর ও নগরোন্নয়ন দপ্তর। এদিন একথা টুইট করে জানালেন, রাজ্যের পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী, ফিরহাদ হাকিম। আর এর জেরে উপকৃত হবেন রাজ্যের মোট ১১৮ টি পুরসভা ও ৭টি পুরনিগমের প্রায় ৩০ হাজার অস্থায়ী কর্মী।

আরও পড়ুনঃ পুরসভার স্বাস্থ্যকেন্দ্র নয়, হাসপাতালে টিকা দেওয়ার আর্জি জানালেন পুর চিকিৎসকরা!

করোনা কালে ঝুঁকি নিয়েও নিরন্তর কাজ করে চলেছেন, পুরসভার অস্থায়ী স্বাস্থ্যকর্মীরা। জরুরি পরিষেবার মতো গুরুত্ব দিয়ে করোনা পরীক্ষা-সহ একাধিক কাজের সঙ্গে যুক্ত থেকেছেন তাঁরা। বিপদকে তুচ্ছ করে জনগণের প্রতি দায়িত্বপালনে তাঁদের এই নিষ্ঠা নজর এড়ায়নি দপ্তরের কর্তাদের। তাই গত ১৪ ডিসেম্বর পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম জানিয়েছিলেন যে এই পরিস্থিতিতে এত ভালভাবে কাজের স্বীকৃতি হিসেবে তাঁদের ভাতাবৃদ্ধির কথা ভাবছে দপ্তর। এক মাস কাটতে না কাটতেই অর্থদপ্তরের অনুমোদন সাপেক্ষে তা কার্যকরা করা হল। জানা গিয়েছে, এখন থেকে রাজ্যের বিভিন্ন পুরসভার স্বাস্থ্যকর্মীরা প্রায় ৪৪ থেকে ৯৫ শতাংশ বাড়তি ভাতা পাবেন। বিভিন্ন স্তরের কর্মীদের ভাতাবৃদ্ধির হার বিভিন্ন।

কঠিন লড়াইয়ের পুরস্কার, ভাতা বাড়ল রাজ্যের পুরসভার স্বাস্থ্যকর্মীদের। এদিন, টুইটারে পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম জানিয়েছেন, “এই কর্মীদের ভাতা বেড়ে দাঁড়াল ৪৫০০ টাকা। প্রথম স্তরের সুপারভাইজারদের ভাতা ছিল ৩৩৩৮ টাকা। এখন থেকে তাঁরা পাবেন ৬৫০০ টাকা, শতকরা হিসেবে যা আগের চেয়ে প্রায় ৯৫ শতাংশ বেশি। এছাড়া দু’ক্ষেত্রেই অবসরকালীন ভাতার অঙ্কও বাড়ানো হল। আগে তা ছিল ২ লক্ষ টাকা। এখন থেকে পুরসভার সর্বস্তরের স্বাস্থ্যকর্মীরা অবসরকালীন ভাতা হিসেবে হাতে পাবেন ৩ লক্ষ টাকা।”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x