করোনাকালে ভাড়া নিয়ে দ্বন্দ্বের জেরে মৃতের দেহ ফেলে চলে গেল অ্যাম্বুলেন্স।

করোনাকালে ভাড়া নিয়ে দ্বন্দ্বের জেরে মৃতের দেহ ফেলে চলে গেল অ্যাম্বুলেন্স।
করোনাকালে ভাড়া নিয়ে দ্বন্দ্বের জেরে মৃতের দেহ ফেলে চলে গেল অ্যাম্বুলেন্স।

নজরবন্দি ব্যুরোঃ করোনাকালে ভাড়া নিয়ে দ্বন্দ্বের জেরে মৃতের দেহ ফেলে চলে গেল অ্যাম্বুলেন্স।করোনাকালে মৃত ব্যক্তিকে নিয়ে অমানবিকতার সাক্ষী থাকল রাজ্য। ভাড়া নিয়ে বচসার জেরে মৃত ব্যক্তির দেহ বাড়ির সামনেই ফেলে রেখে চলে গেলেন গাড়ির চালক। যার জেরে চরম হয়রানির শিকার হয় মৃতের পরিবার।

আরও পড়ুনঃ আদালত সিদ্ধান্ত নেবে… ৬ ঘন্টা পর নিজাম প্যালেস ছাড়লেন মমতা

শেষ পর্যন্ত স্থানীয় পঞ্চায়েত সমিতির উদ্যোগে সম্পন্ন হল সৎকার। ঘটনার কেন্দ্র দক্ষিন ২৪ পরগনার নোদাখালির অন্তর্গত চকমানিক গ্রাম। রবিবার বিকেলে ওই গ্রামের বাসিন্দা অভিজিৎ রায় এর আচমকা হৃদযন্ত্রের সমস্যা শুরু হয়। তাঁর মা অ্যাম্বুলেন্স জোগাড় করে হাসপাতালে পাঠালে সেখানে তাঁকে মৃত ঘোষণা করা হয়। এর পরেই অ্যাম্বুল্যান্স চালক নানারকম যুক্তি খাড়া করতে শুরু করেন। মৃতদেহ বাড়িতে পৌঁছে দেওয়ার বদলে প্রচুর টাকাও তিনি দাবি করেন বলে অভিযোগ মৃতের পরিবারের।

শেষ পর্যন্ত দেহ গাড়িতে তুলতে রাজি হয়ে হাসপাতাল থেকে রওনা দিলেও মাঝপথেই মৃতদেহ ফেলে চলে যান চালক। মৃতের মা ছেলের দেহ বাড়িতে ফেরানোর জন্য রাস্তায় বসেই কান্নাকাটি শুরু করেন। শেষ পর্যন্ত স্থানীয় মানুষ ও পঞ্চায়েত সমিতির সদস্যদের উদ্যোগে রাতেই তাঁর শেষকৃত্য সম্পন্ন হয়।

করোনাকালে ভাড়া নিয়ে দ্বন্দ্বের জেরে মৃতের দেহ ফেলে চলে গেল অ্যাম্বুলেন্স। পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি বুচান বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন  ‘‘অসাধু এই অ্যাম্বুল্যান্স চালক অমানবিকতার পরিচয় দিয়েছেন। ইতিমধ্যেই পুলিশকে বিষয়টি জানিয়েছি। আশা করি তাঁর বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’’ তবে এখনও পর্যন্ত এই ঘটনায় ওই চালকের কোন খোঁজ মেলেনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here