SSC-TET: ‘ক্ষোভ থাকলেই ভালবাসা হবে’, নিয়োগ দুর্নীতির ‘বিচার’ বিতর্কে ইতি টানলেন অরুণাভ!

'ক্ষোভ থাকলেই ভালবাসা হবে', নিয়োগ দুর্নীতির 'বিচার' বিতর্কে ইতি টানলেন অরুণাভ!
Arunava Ghosh and Abhijit Ganguly

নজরবন্দি ব্যুরোঃ স্কুল সার্ভিস কমিশন হোক, প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ। প্রতি ক্ষেত্রেই নজিরবিহীন নির্দেশ দিয়েছেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। তাঁর নির্দেশে চাকরি গেছে রাজ্যের শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী পরেশ অধিকারীর মেয়ের। রীতিমত ভয়ে কাঁপছে অভিযুক্তরা। এই পরিস্থিতিতে সামনে আসে আইনজীবী অরুণাভ ঘোষের মন্তব্য। আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ দিচ্ছেন না, অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন অরুণাভ ঘোষ!

আরও পড়ুনঃ দলের নেতাকে ঘুষ দিয়েও শিক্ষক হওয়া হয়নি, ১৪ লক্ষ দিয়ে প্রতারিত তৃণমূল নেতা

ঘটনার সূত্রপাত এসএসসি মামলার আগের একটি শুনানি থেকে। আইনজীবী কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে কথোপকথন চলাকালীন প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের সম্পত্তির প্রসঙ্গ উঠলে বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায় বলেছিলেন, ‘‘কোনও দিন সুযোগ হলে গাঁধী পরিবারের সম্পত্তির হলফনামাও দেখব।’’ ওই মন্তব্যকে কেন্দ্র করে বিচারপতি আইন জানেন কি না, তা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন আইনজীবী অরুণাভ ঘোষ।

Calcutta highcourt 14

কলকাতা হাই কোর্টের বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়কে নিয়ে ‘বিরূপ’ মন্তব্য করার অভিযোগ উঠেছিল অরুণাভ ঘোষের বিরুদ্ধে। নাম না করে পাল্টা অরুণাভকে ‘জ্যাঠামশাই’ বলে সম্বোধন করেছিলেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। শুধু তাই-ই নয়, ওই অরুণাভর উদ্দেশে তাঁর মন্তব্য ছিল, “যা মন্তব্য করা হচ্ছে তা ঠিক নয়। ওই ‘জ্যাঠামশাইয়ের’ পারফরম্যান্স কী, তা সবাই জানে!”

abhijit

২৪ ঘন্টার মধ্যেই সেই মন্তব্যের জবাব দেন অরুণাভ। তিনি বলেন, ‘আমি জরুরি অবস্থার বিরোধিতা করে জেল খেটেছি। বিধানসভায় স্পিকারের অন্যায়ের প্রতিবাদ করাতেও আমার জেল হয়েছিল। প্রয়োজন হলে আবার জেলে যাব। তবু বিচারের নামে বিচারপতির অনাচার মানব না।’ তাঁর কথায়, ‘ওই বিচারপতির ক্ষমতা থাকলে আমাকে জেলে পাঠান। ক্ষমতা থাকলে আমার বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার মামলা করুন। দেখি উনি কতদূর যেতে পারেন।’

‘ক্ষোভ থাকলেই ভালবাসা হবে’, নিয়োগ দুর্নীতির ‘বিচার’ বিতর্কে ইতি টানলেন অরুণাভ!

'ক্ষোভ থাকলেই ভালবাসা হবে', নিয়োগ দুর্নীতির 'বিচার' বিতর্কে ইতি টানলেন অরুণাভ!
‘ক্ষোভ থাকলেই ভালবাসা হবে’, নিয়োগ দুর্নীতির ‘বিচার’ বিতর্কে ইতি টানলেন অরুণাভ!

আর আজ আদালতে সেই বিতর্কে ইতি টানলেন দুজনেই। এদিন হাইকোর্টে অরুণাভ ঘোষের উদ্দেশ্যে বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় বলেন, ‘আপনার প্রতি আমার কোনও ক্ষোভ নেই।’ জবাবে অরুণাভ বলেন, ‘ক্ষোভ থাকলেই ভালবাসা হবে। আমি রাতে ঘুমাতে পারি না।’ তখন অভিজিৎ বাবু বলেন, ‘আপনি বর্ষীয়ান আইনজীবী। যা হয়েছে ভুলে যান। আমি কিছু মন্তব্য করেছি। ভুলে যান। আমি তুলে নিচ্ছি।’ অরুণাভ বলেন, ‘আমি কিছু মনে রাখিনা।’