৬ লক্ষ ঘরের মধ্যে ১০ টি পেয়েছেন মুসলিমরা, যোগী রাজে বিস্মিত আসাদুদ্দিন!

নজরবন্দি ব্যুরোঃ আবাস যোজনায় ৬ লক্ষ ঘরের মধ্যে ১০ টি পেয়েছেন মুসলিমরা! নজিরবিহীন পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ সামনে আনলেন আসাদুদ্দিন ওয়াইসি। উত্তরপ্রদেশ রাজ্যের সংখ্যালঘু মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষদের দৈন্যদশার ছবি তুলে ধরেছেন আসাদুদ্দিন ওয়াইসি। মুসলমান সম্প্রদায়ের প্রতি বিমাতৃসুলভ আচরন এবং অনুন্নয়নের জন্যে তিনি কাঠগড়ায় তুলেছেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথকে।

আর পড়ুনঃ বলদ কিংবা মোষ এবং মেয়েরা সুরক্ষিত উত্তরপ্রদেশে, বিতর্কিত মন্তব্য যোগী আদিত্যনাথের!

কিছুদিন পরেই উত্তরপ্রদেশে বিধানসভা নির্বাচন। ভারতের সব থেকে বর রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনের ফল বেশ কিছুটা প্রভাব ফেলবে আগামি ২৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে। সেকথা মাথায় রেখে সব পক্ষই টার্গেট করেছে উত্তর প্রদেশ কে। এই রাজ্যের ৪০৩ টি আসনে প্রার্থী দেওয়ার ঘোষণা আগেই করেছে শিবসেনা। আর এবার ১০০ আসনে প্রার্থী দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে আসাদুদ্দিন ওয়াইসির মিম।

ইতিমধ্যেই উত্তর প্রদেশে প্রচার শুরু করেছেন হায়দ্রাবাদের সাংসদ। আর উত্তরপ্রদেশ সফর সেরেই যোগীর বিরুদ্ধে বিমাতৃসুলভ আচরনের অভিযগ তুলেছেন মুসলমান দের প্রতি। ওয়াইসি অভিযোগ করেছেন, আবাস যোজনায় ৬ লক্ষ ঘরের মধ্যে ১০ টি পেয়েছেন মুসলিমরা! তাঁর কথায়, “২০১৭-১৮ সালের মধ্যে প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার অধীনে সমগ্র রাজ্যে ছয় লক্ষ বাড়ি নির্মিত হয়েছিল। যার মধ্যে মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষেরা মাত্র ১০টি ঘর পেয়েছে।”

আবাস যোজনায় ৬ লক্ষ ঘরের মধ্যে ১০ টি পেয়েছেন মুসলিমরা!

আবাস যোজনায় ৬ লক্ষ ঘরের মধ্যে ১০ টি পেয়েছেন মুসলিমরা!

তাঁর অভিযোগ, “এমএসডিপি প্রকল্পে সংখ্যালঘুদের জন্য ১৬০০ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছিল। কিন্তু সেই খাতে মাত্র ১৬ কোটি টাকা খরচ করা হয়েছে।” আসাদুদ্দিন ওয়াইসির প্রশ্ন, “উত্তরপ্রদেশে ড্রপআউটের হার ৬০ শতাংশ। এই সংখ্যা নিয়ন্ত্রণ করতে সরকার কী করেছে?”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here