রাম মন্দিরঃ২ বছরে হয়েছে ৪০ শতাংশ কাজ, ধীরে ধীরে গড়ে উঠছে রামমন্দির

২ বছরে হয়েছে ৪০ শতাংশ কাজ,ধীরে ধীরে গড়ে উঠছে রামমন্দির
40 percent work has been done in 2 years, Ram Mandir is slowly being built

নজরবন্দি ব্যুরো: দীর্ঘ আইনি জটিলতা কাটিয়ে অয্যোধার বিতর্কিত জমিতে রামমন্দির নির্মাণের নির্দেশ দিয়েছিল সুপ্রিম কোর্ট। ঐতিহাসিক সেই রায়দানের পরেই ভুমি পুজোর মাধ্যমে শুরু হয়েছিল রামমন্দির নির্মাণের কাজ। উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ সহ প্রথম সারীর নেতারা। জানা গিয়েছে, ২০২৪ সালের মকর সংক্রান্তিতে উদ্বোধন করা হতে পারে এই মন্দিরটি। কিন্তু এখন কতটা কাজ এগোল? তা নিয়ে আগ্রহ সাধারণ মানুষের।

আরও পড়ুনঃ বন্ধ থাকছে শিলিগুড়ি থেকে দার্জিলিং টয় ট্রেন! ফের চালু কবে থেকে?

রাম মন্দিরের ভিত্তি নির্মাণ গ্রানাইট পাথর দিয়ে তৈরী করার কাজ ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে। মূল নির্মাণটি রাজস্থানের বংশী পাহাড়পুর পাথরে খোদাই করা হবে।৪০০ ফুট লম্বা, ৩০০ ফুট চওড়া এলাকা জুড়ে ভিত তৈরি হচ্ছে। ভিত্তিপ্রস্তর দৃঢ় করার জন্য ব্যবহার করা হচ্ছে পাথরের গুঁড়ো, বিভিন্ন ধরনের পাথর, সিমেন্ট ও জলের মিশ্রণ।বহু বছরের বিতর্ক কাটিয়ে রাম মন্দিরের ভূমিপূজা হয়েছে গত দুই বছর আগে।

ধীরে ধীরে গড়ে উঠছে রামমন্দির, ৪০ একরের কাজ শেষ
ধীরে ধীরে গড়ে উঠছে রামমন্দির, ৪০ একরের কাজ শেষ

বর্তমানে খোদাইয়ের কাজ শুরু হয়েছে এবং গর্ভগৃহে মূল প্রতীক রাজস্থান থেকে এনে প্রতিষ্ঠিত করা হয়ে গেছে। এবং ৪০ একরের কাজ শেষ হয়ে গেছে। দিনে ১২-১৪ ঘন্টা ধরে অবিরাম কাজ জারি রয়েছে রাম মন্দিরের। রাম মন্দির তৈরি করতে খরচ হবে ১১০০ কোটি টাকার বেশি। ইতিমধ্যে ৪০ শতাংশ কাজ  শেষ  হয়ে  গেছে।

1234
ধীরে ধীরে গড়ে উঠছে রামমন্দির, ৪০ একরের কাজ শেষ

উল্লেখ্য,২০১৯ সালের ৯ নভেম্বর অয্যোধার বিতর্কিত জমি নিয়ে ঐতিহাসিক অযোধ্যা মামলার রায় দেয় ভারতের সুপ্রিম কোর্ট।সর্বোচ্চ আদালতের রায়ে বলা হয়, বিতর্কিত ওই পৌনে তিন একর জায়গায় একটি ট্রাস্টের অধীনে রামের নামে নির্মিত হবে মন্দির। আর অযোধ্যাতেই কোনো জায়গায় মুসলমানদের মসজিদ নির্মাণের জন্য পাঁচ একর জায়গার ব্যবস্থা করে দেবে সরকার।

২ বছরে হয়েছে ৪০ শতাংশ কাজ, ৪০ একরের কাজ শেষ 

ধীরে ধীরে গড়ে উঠছে রামমন্দির, ৪০ একরের কাজ শেষ
ধীরে ধীরে গড়ে উঠছে রামমন্দির, ৪০ একরের কাজ শেষ

আদালতের রায় মেনে রামমন্দির নির্মাণে এরই মধ্যে গঠন করা হয়েছে ট্রাস্ট। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের পর এগিয়ে চলছে মন্দির নির্মাণের কাজ।আগামী লোকসভা নির্বাচনের আগেই রামমন্দির নির্মাণের কাজ শেষ করা হবে বলে মনে করা হচ্ছে। আগামী দিনে এই ইস্যুকে হাতিয়ার করে নির্বাচনে লড়াই করতে নামবে বিজেপি। এমনটাই মনে করছে রাজনৈতিক মহল।